ভয়াবহ বায়ু দূষণে ভারতের রাজধানী দিল্লি এখনো কুয়াশাচ্ছন্ন। গত শনিবার সকালে দিল্লির বাতাসের মান সংক্রান্ত সূচক (একিউআই) ছিল ৪৫০ এর কাছাকাছি বর্তমানে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬২৫। সাধারণত এই সূচক ২০০ ছাড়িয়ে গেলেই মানুষের শরীরে তার প্রভাব পড়তে শুরু করে। খবর এনডিটিভির।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ঘর থেকে বের হলেই চোখ জ্বলছে। বেশিক্ষণ বাইরে থাকলে হচ্ছে প্রবল কাশি, সঙ্গে বাড়তি উপসর্গ হিসেবে গলা বসে যাচ্ছে। এর জেরে ইতিমধ্যে দিল্লির স্কুল আগামী মঙ্গলবার পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। জনস্বাস্থ্যগত জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে নির্মাণ কাজ বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া ভয়াবহ বায়ু দূষণের কারণে দিল্লির বিভিন্ন ফ্লাইটের সময়সূচি পরিবর্তন করা হয়েছে।

মুখ্য মন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল দিল্লির এমন পরিস্থতি মোকাবেলায় সমস্ত পদক্ষেপ নিতে করতৃপক্ষকে নিরদেশ দিয়েছেন। এছাড়া তিনি জানান, দিল্লির বায়ু দূষণ রোধে তার সরকার সমস্ত পদক্ষেপ হাতে নিবে।

এছাড়া কেজরিওয়াল অভিযোগ করেছেন, দিল্লির বায়ু দূষণের জন্য পার্শ্ববর্তী দুই রাজ্য পাঞ্জাব ও হরিয়ানাও দায়ী। এই দুই রাজ্যের প্রশাসন কৃষকদের শস্যের উচ্ছিষ্ট পোড়াতে বাধ্য করায় এই বেহাল দশা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য