সৌদি আরবের রাষ্ট্র-মালিকানাধীন তেল কোম্পানি সৌদি আরামকো রিয়াদের স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত হওয়ার পরিকল্পনার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

রোববার টুইটারে আরবি ভাষায় লেখা এক পোস্টে তারা শেয়ার ছাড়ার এ আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

ঘোষণায় কত শতাংশ শেয়ার ছাড়া হচ্ছে সে সম্বন্ধে বিস্তারিত না বললেও সৌদি এ কোম্পানিটি তাদের ১ থেকে ২ শতাংশ শেয়ার বাজারে ছাড়তে যাচ্ছে বলে অনুমান ব্যবসায়িক সূত্রগুলোর।

১৯৩৩ সালে তেল অনুসন্ধান ও খনন কাজের জন্য সৌদি আরব যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার স্ট্যান্ডার্ড অয়েল কোম্পানির (পরে শেভরন নামে পরিচিত হয়) সঙ্গে চুক্তি করলে সৌদি আরামকোর জন্ম হয়। ১৯৭৩ থেকে ১৯৮০ সালের মধ্যে রিয়াদ পুরো কোম্পানিটি কিনে নেয়।

এনার্জি ইনফরমেশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের তথ্য অনুযায়ী, ভেনেজুয়েলার পর সৌদি আরবের তেলের রিজার্ভই সবচেয়ে বেশি। তেল উত্তোলনের দিক থেকেও দেশটি দ্বিতীয়; প্রথম যুক্তরাষ্ট্র।

তুলনামূলক সস্তায় তেল উত্তোলন ও সমগ্র দেশের তেল সম্পদের ওপর একচ্ছত্র মালিকানার কারণেই আরামকো বিশ্বজুড়ে সবচেয়ে প্রভাবশালী তেল কোম্পানিতে পরিণত হয়।

পশ্চিমা বিভিন্ন সংস্থা সৌদি আরবের এ তেল কোম্পানিটির বাজারমূল্য এক দশমিক দুই ট্রিলিয়ন বললেও রিয়াদের হিসাবে তা অনেক বেশি, প্রায় দুই ট্রিলিয়ন। এ মতপার্থক্যও শেয়ার বাজারে আরামকোর দেরিতে আসার অন্যতম কারণ, বলছেন বিশ্লেষকরা।

মধ্যপ্রাচ্যের টালমাটাল পরিস্থিতি কোম্পানিটিতে বিনিয়োগের পথে বাধা বলেও মনে করছেন তারা। সাম্প্রতিক সময়ে সৌদি আরবের তেল শিল্পক্ষেত্রে হামলার ঘটনাকে এক্ষেত্রে উদাহরণ হিসেবেও দেখাচ্ছেন তারা।

অবশ্য সৌদি আরব-ইরান দ্বন্দ্ব ও উপসাগরের সংঘাতমুখর পরিস্থিতির মধ্যে চলতি বছরের প্রধমার্ধেই আরামকো ৪৬ দশমিক ৯ বিলিয়ন ডলার লাভ করেছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। একই সময়ে অ্যাপলের লাভ ২১ দশমিক ৫ বিলিয়ন ডলার, এক্মন মোবিলের মাত্র ৫ দশমিক ৫ বিলিয়ন ডলার।

ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান ক্ষমতায় বসার পর থেকেই সৌদি আরব তেলনির্ভর অর্থনীতি থেকে সরে আসার চেষ্টা করছে, তারই অংশ হিসেবে এবার বিশ্বের সবচেয়ে লাভজনক এ কোম্পানিকে শেয়ার বাজারে নিয়ে আসা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন দেশটির কর্মকর্তারা।

‘ভিশন ২০৩০’ এর আওতায় সৌদি আরবে পর্যটন শিল্পের বিকাশেও রিয়াদ একের পর এক পদক্ষেপ নিচ্ছে। সম্প্রতি তারা ৪৯টি দেশের নাগরিকদের জন্য ভ্রমণ ভিসা চালু করেছে, নারী ভ্রমণকারীদের ক্ষেত্রে পোশাকের বিধিনিষেধও শিথিল করেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য