ফুসফুসে ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি কমাতে পারে দই এবং উচ্চ আঁশযুক্ত খাবার।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশভিলে অবস্থিত ভ্যানডারবিল্ট ইউনিভার্সিটির এক গবেষণায় দেখা গেছে, খাদ্যাভ্যাসে ভোজ্য আঁশ ও টক দইয়ের আধিক্য থাকলে তা ফুসফুস ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা কমায়।

যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপ ও এশিয়ার প্রায় ১৪ লাখ মানুষের স্বাস্থ্যবিষয়ক তথ্য পর্যালোচনার ভিত্তিতে এই দাবি করছেন গবেষকরা। ‘জেএএমএ অনকোলজি’ শীর্ষক জার্নালে গবেষণাটি প্রকাশিত হয়।

ভ্যানডারবিল্ট ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক এবং এই গবেষণার জ্যেষ্ঠ লেখক শিয়াও-ওউ শু বলেন, “খাদ্যাভ্যাস নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের দেওয়া ২০১৫-২০২০ ‘ডায়েটারি গাইডলাইন’ মেনে চলার পরামর্শ দেয় আমাদের গবেষণা এবং এই নীতিমালা যে উপকারী তার স্বপক্ষে যুক্তিও তুলে ধরে।”

এই গবেষণার জন্য অংশগ্রহণকারীদের তাদের ভোজ্য আঁশ ও টক দই খাওয়ার পরিমাণের ভিত্তিতে পাঁচ ভাগে বিভক্ত করা হয়। যারা সবচাইতে বেশি পরিমাণে ভোজ্য আঁশ আর টক দই খান তাদের ফুসফুস ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা যারা একেবারেই এই দুটি উপাদান খুবই কম খান বা একেবারেই খান না তাদের তুলনায় ৩৩ শতাংশ কম।

শিয়াও-ওউ শু আরও বলেন, “এই সম্পর্ক বেশ জোরালো। ধূমপায়ী, অধূমপায়ী এবং জীবনে কখনই ধূমপান করেননি এমন মানুষের মাঝেও একই সম্পর্ক পাওয়া গেছে। নারী-পুরুষ উভয়েই ক্ষেত্রেই এই প্রভাব সমান। এই খাবারগুলোর ‘প্রিবায়োটিক’ এবং ‘প্রোবায়োটিক’ উপাদানের মাঝে স্বাস্থ্যোপকারী গুণগুলো হয়ত লুকিয়ে আছে।”

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য