মাসুদ রানা পলক, ঠাকুরগাঁওঃ ঠাকুরগাঁও জেলার রানীশংকৈল উপজেলার হোসেনগাঁও ও হরিপুরের আমগাঁও ইউনিয়নের মধ্যবর্তী ডিগা বিলে প্রায় ৩ একর ১৫ শতাংশ জমির ফসল নষ্ট করার অভিযোগ উঠেছে ।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, হরিপুরের কামারপুকুর গ্রামের মৃত চয়ন মোহাম্মদের ছেলে আমিরুল ইসলামের মাঠের আমন (জিরাপাতি) ধানের প্রায় সব ফসল কীটনাশক (আগাছা নাশক) ঔষধ দিয়ে গভীর রাতে স্প্রে করে ধান ক্ষেত নষ্ট করে ফেলে।

এ নিয়ে ভুক্তভোগী আমিরুর ইসলাম বাদী হয়ে একই গ্রামের জহিরউদ্দিন (৩৯), আইনুল হক(৫৫), মোবারক আলি(৩৬), হাফিজুল ওরফে বাংকা (৪০), নুরজামাল (৩৫) মোট ৫ জনকে আসামী করে ঠাকুরগাঁও জেলা কোর্টে মামলা দায়ের করেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ঐ কৃষকের ফসলের মাঠের ধান কীটনাশক (আগাছা নাশক) ঔষধের কারনে বিনষ্ট হয়ে লাল হয়ে গেছে।

আমিরুল ইসলাম সংবাদকর্মীদের জানান, পারিবারিক শত্রুতার জের ধরে পূর্বের হুমকি স্বরূপ তার ধানক্ষেতে এমন ক্ষতি সাধন করেন বিপক্ষ ব্যক্তিরা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায় সে সমস্ত জমি নিয়ে উল্লেখ্য নামধারী ব্যক্তিদের সাথে মামলা চলছে দীর্ঘদিন ধরে । তিনি আরো বলেন চলতি বছরে প্রায় তার ২ লক্ষ টাকা মূল্যের ধানের ক্ষয়ক্ষতি করা হয়েছে । বর্তমানে তার ফসল নষ্ট হয়ে পুড়ে যাচ্ছে এতে করে তার আর্থিকসহ পারিবারিক অসচ্ছলতা দেখা দিবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন ভুক্তভোগী আমিরুল ইসলাম। তার এই ঘটনাটি এলাকাবাসীর অনেকে জানেন।

এদিকে এই বিষয়টি নিয়ে বিবাদী আইনুলের ফসল নষ্ট করার বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফসলে স্প্রে করার বিষয়টি অস্বীকার করেন এবং কি উল্টো বাদী আমিরুল ইসলামকে দায়ী করেন । সরোজমিনে ঘটনাটি তদন্ত করতে স্থানীয় লোকজন জোরদাবী জানান এবং এ রকম ন্যাক্কারজনক ঘটনার বিচার দাবি করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য