স্পেন সরকারের হাতে আটক স্বাধীনতাকামী নেতাদের মুক্তির দাবিতে বার্সেলোনায় আন্দোলন করেছে অন্তত সাড়ে তিন লাখ মানুষ। শনিবারের শান্তিপূর্ণ এ পদযাত্রায় অংশ নিয়ে মানুষ কাতালান নেতাদের মুক্তির পাশাপাশি কাতালোনিয়ার স্বাধীনতা আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়েছে। প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে চলা এ আন্দোলনে এর আগে এত লোকের সমাগম হয়নি। খবর বিবিসি’র।

রয়টার্স জানিয়েছে, কাতালোনিয়ার কয়েকটি স্থানীয় স্বাধীনতার দাবিতে আন্দোলনকারী গ্রুপ এক শান্তিপূর্ণ পদযাত্রার ডাক দেয়। তাদের ডাকে সাড়া দিয়ে রাস্তায় নেমে আসে প্রায় সাড়ে তিন লাখ মানুষ। স্বাধীনতাকামী জনতার স্রোত বার্সেলোনার ওয়াটার ফ্রন্ট থেকে শুরু করে সাগ্রাদা ফ্যামিলিয়া চার্চ পর্যন্ত বিস্তৃতি লাভ করে।

একজন বিক্ষোভকারী রয়টার্সকে বলেন,‘আমি মনে করি এই সমস্যা সমাধানের এখনই সময়, কারণ সবসময় আমরা একই বিন্দুতে আটকে আছি। রাষ্ট্রের দমন-পীড়নে বিরক্ত হয়ে আজ আমরা এখানে এসেছি’।

আরেকজন বিক্ষোভকারী বলেন, ‘বার্সেলোনায় যা ঘটছে তা আমাদের প্রতিফলন নয়, আমরা আন্দোলনকারীরা সহিংস নই। আমরা আমাদের দেশ চাই, স্বাধীনতা চাই’।

এদিকে শনিবার সকালে কাতালান অঞ্চলের ৮’শ ১৪ জন মেয়র কাতালান প্রেসিডেন্ট কুইম তোরার সাথে দেখা করার জন্য আঞ্চলিক সরকারের সদর দপ্তরে জড়ো হন। এ সময় তারা ‘স্বাধীনতা’ বলে স্লোগান দেন। প্রেসিডেন্ট তোরা বলেন, ‘আমাদেরকে দমন-পীড়নের বিরুদ্ধে অবশ্যই ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে এবং স্পেন রাষ্ট্রকে কথা বলতে বাধ্য করতে হবে’।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে কাতালান সরকার স্বাধীনতার প্রশ্নে গণভোটের আয়োজন করে। গত ১৪ অক্টোবর গণভোটে নেতৃত্বদানকারী শীর্ষ ৯ নেতাকে ৯-১৩ বছর মেয়াদে কারাদণ্ড দেয় স্পেনের সুপ্রিম কোর্ট। এ রায় ঘোষণার পর রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ শুরু করে কাতালানরা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য