দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার সড়ক-মহাসড়কগুলোতে অবৈধ যানবাহনের দৌরাত্ম্য দিন দিন আশঙ্কাজনক হারে বেড়েই চলেছে। এতে প্রতিনিয়তই ঘটছে ছোট-বড় দুর্ঘটনা। সড়কে ঝরছে প্রাণ।

ফুলবাড়ী-দিনাজপুর, বগুড়া, মধ্যপাড়া, রংপুর, পার্বতীপুর মহাসড়কের মধ্যপাড়া, ভবানীপুর, জয়নগর, মাদিলাহাট, দেশমা, আটপুকুর, পুখুরীহাট, রুদ্রানী, জলপাইতলী, মেলাবাড়ী, শিবনগর ও আফতাবগঞ্জ স্বপ্নপূরী পর্যন্ত সড়ক ও মহাসড়কে খেয়াল-খুশিমতো চলছে নসিমন, করিমন, ভটভটি, ইজিবাইক, অটোরিকশা, টেম্পো, থ্রি-হুইলার,ট্রাক্টরসহ বিভিন্ন অবৈধ যান ঝুঁকি নিয়ে দাপিয়ে চলাচল করছে। সড়ক ও মহাসড়কে এসব অবৈধ যানবাহন চলাচলের কারণে প্রায়ই ঘটছে অহরহ দুর্ঘটনা। এসব দুর্ঘটনায় হতাহতের ঘটনাও ঘটছে অহরহ।

মহাসড়কে দুর্ঘটনা হ্রাসে ২০১৫ সালের আগস্টে দেশের ২২টি মহাসড়কে নসিমন, করিমন, ভটভটি, ইজিবাইক, অটোরিকশা, টেম্পো, থ্রি-হুইলারসহ অযান্ত্রিক যানবাহনের চলাচল নিষিদ্ধ করে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। প্রজ্ঞাপন জারির প্রায় পাঁচ বছর পার হলেও ফুলবাড়ী উপজেলার সড়ক ও মহাসড়কে চলাচলকারী এসব অবৈধ ঝুঁকিপূর্ণ যানবাহন চলাচল বন্ধ করা যায়নি। ফলে দিন দিন পাল্লা দিয়ে বেড়েই চলেছে এসব অবৈধ যানবাহনে চলাচল। এর সাথে যোগ হয়েছে কৃষি কাজের প্রয়োজনের আমদানিক করা শত শত ট্রাক্টর। ট্রাক্টরের সাথে টলি লাগিয়ে প্রশাসনকে ম্যানেজ করে চলছে পণ্য আনে নেওয়া। অদক্ষ ডাইভার দ্বারা চালানোর কারনে একই তালে বাড়ছে দুর্ঘটনা, বাড়ছে হতাহতের সংখ্যা।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন নসিমন, করিমন ও ভটভটিচালক বলেন, থানা পুলিশকে ম্যানেজ করেই জীবনের ঝুঁকি নিয়েই সড়ক ও মহাসড়কে ওইসব যানবাহন চালানো হচ্ছে। তবে মাঝেমধ্যে পুলিশ সড়ক থেকে আটক করলেও পরে সেগুলো দেনদরবার করে ছাড়িয়ে নেওয়া হয়।

এদিকে এসব অবৈধ যানবাহন চলাচল নিবির্ঘে রাখার জন্য বিভিন্ন পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের শাখা হিসেবে অনুমোদন নিয়ে স্থানীয়ভাবে গড়ে তোলা হয়েছে ট্রাক্টর শ্রমিক ইউনিয়ন,ট্র্ক্টাও মালিক সিমিতি, অটোচার্জার মালিক শ্রমিক ইউনিয়ন, টেম্পো শ্রমিক ইউনিয়ন, নসিমন-করিমন মালিক-শ্রমিক সমিতিসহ অন্তত এক ডজন বিভিন্ন নামে-বেনামে শ্রমিক ইউনিয়ন। সড়কে দুর্ঘটনা থেকে শুরু করে অন্য কোনো জটিলতা সৃষ্টি হলে এসব শ্রমিক ইউনিয়নের পক্ষ থেকে থানা পুলিশসহ স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে দেনদরবার করা হয়ে থাকে।

ফুলবাড়ী থানার ওসি মোঃ ফখরুল ইসলাম বলেন, মাঝে মধ্যেই এগুলো আটক করা হচ্ছে। মহাসড়কে অবৈধ যান যাতে না চলাচল করে সে জন্য তাদেরকে শর্তক করা হচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য