মোট রাজস্ব সমন্বয়ে (এডিআর) সরকারের সিদ্ধান্ত আটকাতে ভারতের টেলিকম কোম্পানিগুলোর করা আবেদন খারিজ করে দিয়েছে দেশটির সর্বোচ্চ আদালত।

এনডিটিভি জানিয়েছে, আদালত একইসঙ্গে টেলিকম খাতের তিন প্রতিষ্ঠান ভারতী এয়ারটেল, রিলায়েন্স কমিউনিকেশনস (আরকম) এবং ভোডাফান আইডিয়ার কাছ থেকে ১৩ লাখ রুপির বেশি বকেয়া অর্থ আদায়ে ডিপার্টমেন্ট অব টেলিকমিউনিকেশনকে অনুমতিও (ডিওটি) দিয়েছে।

বৃহস্পতিবার ভারতের সুপ্রিম কোর্ট এক আদেশে জানায়, সমন্বয় করা মোট রাজস্বের মধ্যে লাইসেন্স ফিও যুক্ত হবে। তবে মুলধনী সম্পত্তি বিক্রি থেকে অর্জিত অর্থ এবং বীমা দাবির অর্থ এতে অন্তর্ভুক্ত হবে না বলে জানিয়েছে আদালত।

এই রায়ের মধ্যে দিয়ে দেশটির টেলিকম বিভাগের বড় জয় হলেও তীব্র প্রতিযোগিতা এবং ঋণভারে ধুঁকতে থাকা কোম্পানিগুলোর জন্য এটি বড় ধরনের ধাক্কা।

সুপ্রিম কোর্টের রায়ে হতাশা ব্যক্ত করেছে কোম্পনিগুলো।

“আমরা মাননীয় আদালতের এই রায়ে হতাশ। কারণে এডিআরের সংজ্ঞা ২০০৫ সাল থেকেই ডিওটি এবং টেলিকম সার্ভিস প্রোভাইডারদের (টিএসপি) মধ্যেকার একটি অমীমাংসিত বিষয় ছিল,” বলেন ভারতীয় এয়ারটেলের মুখপাত্র।

ওই কর্মকর্তা আরও বলেন, “টেলিকম খাতের উন্নয়ন এবং গ্রাহকদের বিশ্বমানের সেবা দিতে টিএসপিগুলো লাখ লাখ ডলার বিনিয়োগ করেছে। (আদালতের)এই সিদ্ধান্ত এমন এক সময়ে দেওয়া হল যখন এই খাত নানা ধরনের সঙ্কটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে এবং হয়ত সার্বিকভাবে এ খাতের সক্ষমতা আরও দুর্বল হয়ে পড়বে।

“পুরনো ১৫টি কোম্পানির ওপরই এই আদেশের প্রভাব পড়েছে। আজকে বেসরকারি খাতের মাত্র দুইটি অপারেটরের সেবা চালু রয়েছে। সরকারকে অবশ্যই এই সিদ্বান্তের প্রভাব পুনর্বিবেচনা এবং এই খাতের ওপর যে আর্থিক বোঝা, তা কমানোর একটি গ্রহণযোগ্য পন্থা বের করতে হবে।”

এদিকে সরকারের দাবিকৃত অর্থ পরিশোধে অপারেটরগুলো ছয় মাসের সময় চেয়েছে।

দেশটির টেলিকম বিভাগ বলছে, ভারতী এয়ারটেল, ভোডাফোন এবং রিলায়েন্সের কাছে তাদের লাইসেন্স ফি বাবদ ৯২ কোটি রুপি এবং স্পেকট্রাম ব্যবহার বাবদ ৪১ কোটি রুপি পাওনা।

বকেয়া লাইসেন্স ফি বাবদ ভারতী এয়ারটেলের কাছে ২১ হাজার ৬৮২ কোটি, ভোডাফোন গ্রুপের কাছে ১৯ হাজার ৮২৩ কোটি, রিলায়েন্সের কাছে ১৬ হাজার ৪৫৬ কোটি এবং আইডিয়া সেলুলারের কাছে আট হাজার ৪৮৫ কোটি রুপ পাওনা বলে দাবি ডিওটির।

রাজস্ব সমন্বয় নিয় সঙ্কটে এর আগে ২০০৬ সালে টেলিকম ডিসপুটস সেটেলমেন্ট অ্যান্ড অ্যাপিলেট ট্রাইব্যুনাল (টিডিএসএটি) অপারেটরগুলোর পক্ষে রায় দিয়েছিল।

এদিকে সুপ্রমি কোর্টের আদেশের পর দেশটির শেয়ারবাজারে ভোডাফোনের শেয়ারের দাম ১৯ শতাংশ এবং ভারতীয় এয়ারটেলের শেয়ারের দাম পাঁচ শতাংশ পড়ে গেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য