29_FNS_N_29.04.2014বিকল্প ধারা বাংলাদেশের সভাপতি অধ্যাপক ডা. বদরুদ্দৌজা চৌধুরী এরশাদের সমালোচনা করে বলেছেন, তিনি পদত্যাগ করবেন কার কাছে তা খুঁজে পাচ্ছেন না, ভাবটা এমন যেন তিনি একাই সিংহপুরুষ বাকি সব চুয়া।

গতকাল মঙ্গলবার বিকেল ৪টায় জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘তিস্তাসহ ভারত-বাংলাদেশের আন্তসীমান্ত নদীগুলোর পানির ন্যায্যহিস্যা আদায়ের উপায়’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, তিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যার আদায়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় যদি মিন মিন করে কথা বলে তাহলে কিভাবে হবে? মিন মিন করে দাবি আদায় করা যায় না।

সভাপতির বক্তব্যে বি চৌধুরী বলেন, তিস্তার পানি কমে যাওয়ায় সরকারের প্রতিবাদের কোনো ভাষা নেই। ভারতের নির্বাচনের পর নাকি তারা কথা বলবে। তিনি বলেন, কৃত্রিম বিরোধীদলও কোনো প্রতিবাদ প্রস্তাব দিতে পারেনি। সংসদ কোনো ভূমিকা নিতে পারেনি। আজকে এ দেশকে শক্তিশালী করার একটাই উপায়, তা হলো জনগণের সরকার। এই সরকারেরে পেছনে যদি জনগণ থাকত তাহলে বিজ্ঞ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ও থাকত। সংসদও শক্তিশালী হতো। ন্যায্য অধিকারের কথা সে সরকার বলতে পারত।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদূর রব, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল, সাবেক পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আবুল হাসান কায়সার, বিকল্পধারা বাংলাদেশের মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান তালুকদার বীরপ্রতীক। জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট (এনডিএফ) এই আলোচনা সভার আয়োজন করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য