las-uddhar_1মোঃ মীর কাসেম লালু বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) সংবাদদাতাঃ বীরগঞ্জে গত মঙ্গলবার কলেজ ছাত্র ইউসুফ তোহা (১৮) নিখোঁজের ৪ দিন পর লাশ উদ্ধার করে দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে। পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে, বীরগঞ্জ ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক আব্দুর রহমানের ২য় পুত্র একই কলেজের এইচএসসি ২য় বর্ষের ছাত্র। ইউসুফ তোহা ভাল রেজাল্ট করার জন্য  দিনাজপুরে কোচিং করতে গিয়ে কারিগরি মহাবিদ্যালয়ের পার্শ্বে একটি ম্যাচে থাকত । গত শনিবার সকালে ম্যাচ থেকে বের হয়। এবং তার মাকে মোবাইল ফোনে বলে মা আমি বাড়ী আসছি, এরপর সন্ধ্যা পযন্ত বাড়ী না পৌছালে পরিবারের লোকজন খোজা খুজি সুরু করে । এক পর্য্যায়ে দিনাজপুর জিআরপি পুলিশের মাধ্যমে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গ থেকে ইউসুফের লাশের সন্ধান পেয়ে সনাক্ত করে। কলেজ ছাত্রের মরদেহ গত মঙ্গলবার ১১টায় বীরগঞ্জ পৌরসভার আদর্শপাড়ায় আনা হয়। আদর্শপাড়া জামে মসজিদ প্রাঙ্গনে ১ম জানাজা শেষে গ্রামের বাড়ি মরিচা ইউনিয়নের মরিচায় ২য় জানাজা শেষে স্থানীয় গোরস্থানে লাশ দাফন করা হয়। আদর্শপাড়ায় জানাজার প্রাক্কালে কলেজ ছাত্র ইউসুফ তোহার চাচা এসএম হাদিউজ্জামান জানাজায় অংশ গ্রহণকারী মুসুল¬ীদের জানান ইউসুফকে হত্যাকরে দিনাজপুর শেখপুরা এলাকায় রেল লাইনের ধারে ফেলে রাখা হয়েছিল। সংবাদ পেয়ে জিআরপি পুলিশ লাশের সুরতহাল রির্পোট লিপিবদ্ধ করে ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করে। হাসপাতাল কতৃপক্ষ বেওয়ারিশ লাশ হিসেবে আঞ্জুমান মফিদুলে লাশ হস্তান্তর করে। আঞ্জুমান মফিদুল লাশ দাফন না করে হিম ঘরে রেখেছিল বলে জানা গেছে। এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য