03. Northern part of americaতুষারঝড়ে গত বুধবার থেকে যুক্তরাষ্ট্রে দক্ষিণাঞ্চলে জীবনযাত্রা অচল হয়ে পড়েছে। বৈরী আবহাওয়ায় কয়েক হাজার শিশু রাতভর স্কুলে আশ্রয় নিয়েছে এবং কয়েক হাজার মানুষ বরফ আবৃত রাস্তায় গাড়িতে আটকা পয়েছে।
বুধবার দক্ষিণাঞ্চলীয় নগর ও শহরগুলোর স্কুল বন্ধ ছিল। মঙ্গলবারের অস্বাভাবিক তুষারপাত ও ঠান্ডা আবহাওয়ায় সৃষ্ট স্থবিরতা কাঠিয়ে উঠতে কর্তৃপক্ষকে যথেষ্ট বেগ পেতে হচ্ছে। এএফপি’র এক খবরে বলা হয়, টেক্সাস পর্যন্ত দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোতে চরম ঠান্ডা আবহাওয়ার কারণে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। দক্ষিণাঞ্চলীয় আলাবামা, ফ্লোরিডা, দক্ষিণ ক্যারোলিনা ও অন্যান্য স্থানে এই বৈরী আবহাওয়ার প্রভাব পড়েছে।

আটলান্টায় তাপমাত্রা হ্রাস পেয়ে ১৪ ডিগ্রি ফারেনহাইট (হিমাঙ্কের নিচে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস) হয়েছে। এখানকার অনেক বাসিন্দাই এর আগে এতো ঠান্ডা আবহাওয়ার সম্মুখীন হয়নি। অনেক স্থানে ২৪ ঘণ্টার বেশি সময় ধরে যানজট লেগে আছে। কয়েক হাজার গাড়ি আরোহী তাদের গাড়ি থেকে নেমে রাস্তার পাশের দোকানগুলোতে আশ্রয় খুঁজছে। সেখানে তারা মেঝেতে রাত কাটিয়েছে।

জর্জিয়া জানায়, প্রচণ্ড ঠান্ডায় অন্তত এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। বরফ আবৃত পিচ্ছিল রাস্তায় ১ হাজার ২০০টির বেশি দুর্ঘটনার খবর পাওয়া গেছে। ডব্লিউএসবিটি ও আটলান্টা জার্নাল কন্সটিটিউশন জানিয়েছে, আটলান্টায় বৈরী আবহাওয়ার কারণে বরফে ঢেকে যাওয়া রাস্তায় আটকা পড়া একটি গাড়িতে এক মহিলা একটি শিশুর জন্ম দিয়েছেন। তিনি মেয়েটির নাম রেখেছেন গ্রেস।

জর্জিয়ার গভর্নর নাথান ডিল স্কুলের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে রাত কাটানো শিক্ষক-শিক্ষিকা ও স্টাফদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘এ বিষয়ে আমি স্কুলগুলোর শিক্ষক-শিক্ষিকা ও স্টাফদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’ তিনি আরো বলেন, ‘স্কুলের শিশুদের নিরাপত্তার কথা ভেবে অনেকে রাতভর তাদের সঙ্গে ছিলেন।’

অনেক শিশু স্কুল বাসে করে বাড়িতে যাওয়ার পথে রাস্তায় আটকা পড়েছে। জর্জিয়ার স্টেট প্যাট্রোলের প্রধান মার্ক ম্যাকডোনা বলেন, ‘সৈন্যরা রাস্তা থেকে বরফ অপসারণে ১৬ থেকে ২০ ঘণ্টা করে কাজ করছে।’ খবরে বলা হয়েছে, পুলিশ রাস্তার পাশে আটকা পড়া গাড়িগুলো উদ্ধারে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। জর্জিয়ার ট্রান্সপোর্টেশন কমিশনার কিথ গোল্ডেন জানান, কর্মকর্তারা রাস্তা চলাচলের উপযোগী তাদের প্রচেষ্টা দ্বিগুণ বাড়িয়েছে।

তিনি বলেন, ‘আমাদের ক্রুরা পুরো রাজ্য জুড়ে কাজ করছেন।’ তিনি আরো বলেন, জর্জিয়া সরকার সবচেয়ে দুর্গত এলাকাগুলোতে বরফ অপসারণ সরঞ্জামাদি পাঠিয়েছে। চলাচলের অনুপযোগী সড়ক থেকে বরফ অপসারণে কাজ করার জন্য কর্মকর্তাদের সুযোগ দিতে বাসিন্দাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আটলান্টার মেয়র ক্যাসিম রিড।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য