10_Chidambaram-Mamata-camভোটের জন্য অন্যান্য রাজনৈতিক দল অবৈধ বাংলাদেশি অভিবাসীদের লাল গালিচা সংবর্ধনা দিয়ে স্বাগত জানায়। কিন্তু ক্ষমতায় এলে এসব বাংলাদেশি অবৈধ অভিবাসীদের তাড়াবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি। রোববার পশ্চিমবঙ্গের শ্রীরামপুরে ভারতীয় জনতা পাটির্র (বিজেপি) এক নির্বাচনী সমাবেশে দলটির প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী মোদি এসব কথা বলেছেন বলে এনডিটিভি জানিয়েছেন। “আপনারা এটি লিখে রাখতে পারেন। ১৬ মে’র পর এসব বাংলাদেশিরা ব্যাগট্যাগ গুছিয়ে তৈরি হয়ে থাকলেই ভাল করবে, ” বাংলাদেশের সীমান্ত সংলগ্ন এলাকাটিতে বলেন ভারতের সম্ভাব্য পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী। পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেস সরকারকে আক্রমণ করে মোদি বলেন, “ভোট ব্যাংক রাজনীতির জন্য আপনারা লাল গালিচা বিছিয়ে রেখেছেন। বিহার থেকে লোক এলে, তারা আপনাদের কাছে বহিরাগত হয়ে যায়। উড়িষ্যা থেকে এলেও বহিরাগত। কিন্তু বাংলাদেশ থেকে কয়েকজন এলেই আপনাদের চোখমুখ উজ্জ্বল হয়ে যায়।” “এইভাবে দেশ চলতে পারে না। আপনাদের ভোট ব্যাংক রাজনীতির জন্য আমরা দেশকে উচ্ছন্নে যেতে দিতে পারি না।” কিছু প্রতিবেদন অনুযায়ী, ভারতে এখন প্রায় ২ কোটি বাংলাদেশি অভিবাসী আছে। কিন্তু এ বিষয়ে নিভর্রযোগ্য কোনো তথ্য নেই। এসব বাংলাদেশীর অনেকেরই ভোটার আইডি কার্ড, রেশনিং কার্ড ও বৈধতার প্রমাণের জন্য দরকারী অন্যান নথি আছে বলে শোনা যায়। এদের অনেকেই ভোটের সময় ফিরে আসে বলে অভিযোগ আছে। অবৈধ বাংলাদেশি অভিবাসীদের ফেরত পাঠানোর বিষয়টি বিজেপি’র সূচিতে সবসময়ই থাকে। তবে এবার মোদির তীব্র মন্তব্যে ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে, বিজেপি ক্ষমতায় এলে এটি আর কথার কথা থাকবে না। সম্প্রতি বিজেপি সভাপতি রাজনাথ সিং বলেছেন, ১৯৭১ সালের পর বাংলাদেশ থেকে যে সব মানুষ ভারতের আসাম, বাংলা ও অন্যান্য রাজ্যে এসে বসতি গেড়েছে তাদের অবৈধ অভিবাসী হিসেবে চিহ্নিত করা উচিত এবং তাদের বিরুদ্ধে  ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য