Dinajpur-22-04-14--জিন্নাত হোসেনঃ  তিস্তার পানি নায্য হিস্যা, তিস্তা সেচ প্রকল্পের আওতাধীন ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের সেচ ব্যয় বৃদ্ধি ও ফলনহানির জন্য ৩০০ কোটি টাকা ক্ষতিপুরণ, ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক ও বেকার ক্ষেতমজুরদের জন্য ১২০ দিনের কর্মসৃজন প্রকল্প চালু এবং  আগামী আমন মৌসুম পর্যন্ত আর্মিরেটে রেশনের দাবিতে সমাজতান্ত্রিকজ ক্ষেতমজুর ও কৃষক ফ্রন্ট/বাসদ কনভেনশন প্রস্তুতি কমিটি দিনাজপুর জেলা শাখার উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল, সমাবেশ ও জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী এবং কৃষিমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান।

Dinajpur-22-04-14----মঙ্গলবার স্মারকলিপি প্রদানের পুর্বে শহরে বিক্ষোভ মিছিল ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বাসদ জেলা সমন্বয়ক রেজাউল ইসলাম সবুজের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন জেলা কমিটির সদস্য কৈশাল চন্দ্র, এ এস এম মনিরুজ্জামানসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। বক্তারা বলেন বাংলাদেশ সরকারের নতজানু পররাষ্ট্রনীতির কারণে ভারত এক তরফাভাবে ৫৪টি  অভিন্ন নদীর পানি প্রত্যাহার করে বাংলাদেশকে মরুভুমি বানানোর চক্রান্ত করছে। যার ফলশ্র“তিতে আজকে তিস্তা শুকিয়ে ধুধু মরুভুমিতে পরিণত হয়েছে। তিস্তা সেবচ প্রকল্পের আওতায় যারা চাষ করত তারা সর্বশান্ত হয়ে গেছে। একই ভাবে ভারত পদ্মার উজানে বাধ দিয়ে সুরমা, কুশিয়ারা বাধ দিয়ে এবং ব্রহ্মপুত্র নদীর উজানে খাল কেটে পানি প্রত্যাহারের চেষ্টা করছে এর ফলাফল হবে ভয়াবহ সুজলা সুফলা বাংলাদেশে মরুকরণের শুরু হবে। এবং বিরুদ্ধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ গণ আন্দোলন গড়ে তোলার আহবান জানান। জেলা প্রশাসনের পক্ষে স্মারকলিপি গ্রহণ করেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ আবু রায়হান মিঞা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য