দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের বিরলে কৃষকদের উদ্বুদ্ধকরনের মধ্যদিয়ে ফল বাগানে আন্তঃফসল (ইন্টারক্রপ) হিসেবে প্রায় বিলুপ্ত হওয়া মাসকলাই চাষে কৃষকদের আগ্রহ বেড়েছে। মাসকলাই চাষ স্বল্প খরচে লাভ বেশি হওয়ায় চলতি মৌসুমে ৫০ টি বাগানসহ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে প্রায় দেড় শ’ বিঘা জমিতে মাসকলাই চাষ করেছে কৃষকরা।

আগামীতে মৌসুমে মশুর ও মগ ডাল আবাদও সম্প্রসারণ করা হবে বলে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সুত্রে জানা গেছে।

বিরল উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মোঃ মাহবুবার রহমান বলেন, উপজেলা পরিষদের অর্থায়নে তাঁর সাবির্ক প্রযুক্তিগত সহায়তায় উপজেলা নার্সারীর পরিত্যাক্ত ৪০ শতক জমিতে কমলা ও লটকনের বাগান স্থাপন করা হয়েছে। বাগান প্রতিষ্ঠিত হওয়ার আগ পর্যন্ত ফাঁকা জমিতে অধিক ফসল হিসেবে দুই মাস মেয়াদী মাসকলাই চাষ করা হয়েছে।

এ এলাকায় মাসকলাই চাষ দিন দিন কমে যাচ্ছে। ডাল চাষে এটি একটি ভাল প্রযুক্তি। ডাল চাষে যেমন আমিষের চাহিদা পুরন করে অন্যদিকে মাটির সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করনের পাশাপাশি মাটির উর্বরতা বৃদ্ধি করে। কারন ডাল ফসলের শিকড়ে নডিউল থাকে সেটি বাতাস থেকে নাইট্রোজেন জমা করে মাটির উর্বর করার ফলে বাগানের ফলনও বেড়ে যাবে।

কৃষিবিদ মাহবুবার রহমান আরও বলেন, চলতি বছর উদ্বুদ্ধ করনের মাধ্যমে বাগানে মাসকলাই চাষ সম্প্রসারন করা হচ্ছে। আগামীতে রবি মৌসুমে বাগানে মশুর ডাল, খরিপ-১ মৌসুমে মুগ ডাল চাষ সম্প্রসারনের পরিকল্পনা রয়েছে। মাত্র দুই মাসের মধ্যেই কম খরচে মাসকলাই চাষে অধিক লাভবান হওয়া সম্ভব এই পযুক্তি আগে কৃষকদের জানা ছিল না।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য