জীবনে চলার পথে এমন সময় আসতে পারে যখন আত্নবিশ্বাস মুখ থুবড়ে পড়ে। গ্রাস করে হতাশা। নতুন করে সবকিছু শুরু করার ইচ্ছেটাও যায় মরে। এমন সময় পেছনে ফেলে সামনে আগানোর চেষ্টা আপনাকেই করতে হবে। মনে রাখবেন, আপনি যদি নিজ থেকে সেই উদ্যোগ না নিতে পারেন, তবে আপনাকে কেউ সাহায্য করতে পারবে না। জেনে নিন হতাশা দূর করার বিজ্ঞানসম্মত কিছু উপায়। তবে এগুলোতে কাজ না হলে অবশ্যই মনোরোগ বিশেষজ্ঞের সাহায্য নিতে হবে।

দৈনন্দিন রুটিন বদলে ফেলুন
ভোরে ঘুম থেকে ওঠা, ভরপেট নাস্তা করা, দিনভর কাজ করা, নিয়মিত এক্সসারসাইজ এবং রাতে ৮ ঘণ্টা ঘুম- এগুলো যদি ঠিকঠাক মেনে চলতে পারেন তবে হতাশা কেটে যাবে অনেকটাই। বেশকিছু গবেষণায় দেখা গেছে, অনিয়মে অভ্যস্ত হয়ে পড়লে জীবনে হতাশা বেড়ে যায়। স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন তাই খুবই জরুরি।

বন্ধুদের সঙ্গে সময় কাটান
দুঃসময়কে ঠেলে দূরে পাঠানোর জন্য প্রিয় বন্ধুর বিকল্প নেই। বন্ধুর সঙ্গে গল্প করুন, সময় কাটান, ঘুরতে যান দূরে কোথাও। ফিরে পাবেন হারিয়ে যাওয়া আত্নবিশ্বাস।

পোষা প্রাণীর সঙ্গে সময় কাটান
আপনার যদি পোষা প্রাণী থাকে তবে তাদের সঙ্গে সময় কাটাতে পারেন।

নিজের যত্ন নিন
অনেকদিন হয়ে গেছে রূপচর্চা করা হয় না? একটু সময় করে পার্লারে গিয়ে ফেসিয়াল বা স্পা করিয়ে নিতে পারেন। এটি আপনাকে ফুরফুরে রাখবে।

পরিবারকে সময় দিন
পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে সময় কাটান। তাদের সঙ্গে ঘুরতে যান। মনে রাখবেন, চরম দুঃসময়েও যারা ছেড়ে যায় না তারা পরিবারের আপনজনরা।

জোর করে হাসুন!
শুনতে হাস্যকর শোনালেও সত্য হচ্ছে আপনি যদি জোর করেও হাসতে পারেন, এটি অনেকটুকু হতাশা দূর করে দেবে। এক গবেষণায় দেখা গেছে হাসলে আমাদের মস্তিষ্কে এক ধরনের হরমোন নিঃসরণ হয় যা মন ভালো রাখতে সাহায্য করে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য