কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারী উপজেলার চর-ভুরুঙ্গামারী ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রামে দুধকুমার নদে নতুন করে ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। হুমকির মুখে পড়েছে ওই ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী ইসলামপুর পাকা জামে মসজিদ, কবরস্থান, ঈদগাহ মাঠসহ নদী তীরবর্তী শতাধিক বসতভিটা।

আজ বুধবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢল ও গত দুদিনের বৃষ্টিতে দুধকুমার নদের পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় নতুন করে এ ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। ভাঙ্গন ঠেকাতে কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ড থেকে জিও ব্যাগ ফেলানে হলেও নদের পূর্ব ও পশ্চিম পাড়ে নতুন করে ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। এতে করে নতুন করে হুমকির মুুখে পড়েছে ইসলামপুর গ্রামসহ নদের তীরবর্তী এলাকা। ভাঙ্গন প্রতিরোধে স্থায়ী ব্যবস্থা করা না হলে নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যেতে পারে ওই গ্রামসহ পাশ্ববর্তী নলেয়া গ্রামের শত শত বসত ভিটা।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে ইসলামপুর গ্রামের ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব অজিত কুমার চৌধুরী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী ওমর ফারুক ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি ফরিদা পারভীন, এশিয়ান নিউজ অব বাংলাদেশের সিনিয়র রিপোর্টার আরিফুল ইসলাম আরিফ।

এ সময় পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ে সহকারী সচিব অজিত কুমার চৌধুরী জানান দুধকুমার নদের অব্যাহত ভাঙ্গন থেকে ইসলামপুর গ্রামসহ নদী তীরবর্তী এলাকা রক্ষাকল্পে প্রতিরোধ প্রকল্প গ্রহণ করেছে সরকার। এরই আলোকে ১৫শ মিটার স্থায়ী বাঁধ নির্মাণের জন্য প্রায় সাড়ে সাতশ কোটি টাকার একটা প্রকল্পের পরিকল্পনা হাতে নেয়া হয়েছে। প্রকল্পটি মন্ত্রণালয়ে অনুমোদন হলে ভাঙ্গনরোধে নদী খননসহ স্থায়ী বাধঁ নির্মাণ করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য