দিনাজপুর সংবাদাতাঃ ভারত থেকে আমদানি করা পেঁয়াজ নিয়ে বিপাকে পড়েছে হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারকরা। প্রতিকেজি পেঁয়াজ ৪০ টাকা থেকে ৫০ টাকায় বিক্রি করলেও পাইকারের অভাবে খালাসকৃত পেঁয়াজ গুদামে পড়ে রয়েছে।

ভারত সরকার পেয়াঁজ রপ্তানি বন্ধ ঘোষণার আগে ২৮ সেপ্টেম্বরের পুরনো এলসি করা ৫৭টি ট্রাকে ৯শ ৪৬ মেট্রিক টন পেয়াঁজ গতকাল শুক্রবার হিলি স্থলবন্দরে প্রবেশ করে। বন্দর দিয়ে দেশে পেঁয়াজ প্রবেশের সাথে কমেছে পেঁয়াজের দাম।

প্রতিকেজি পেঁয়াজ হিলি বন্দরে বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকায়। ৪ দিন থেকে ওপারে পার্কিং এ আটকে থাকায় গরমে অনেক পেঁয়াজ নষ্ট হয়ে গেছে। নষ্ট হওয়া পেঁয়াজ নিয়ে আমদানিকারকরা পড়েছে ্িবপাকে।

আমদানিকারক সাইফুল ইসলাম জানান, ওপারে ৪ দিন আটকে থাকার পর গতকাল ৫৭ ট্রাক পেঁয়াজ দেয় রফতানিকারকরা। গরমে পেয়াজ নষ্ট হয়ে যাওয়ায় ঘরে পেয়াজ বাছাই করা হচ্ছে। ৪০ থেকে ৫০ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ দেওয়া হলেও পাইকাররা নিচ্ছেনা।

তিনি আরও জানান, আগে যে পাইকার ১০ টন পেঁয়াজ নিতো সে বর্তমানে নিচ্ছে ১ টন। এভাবে মানুষ পেঁয়াজ কম খাওয়া শুরু করলে ২-৩ দিনের মধ্যে পেঁয়াজের বাজার ৩০ থেকে ৩৫ টাকায় নেমে আসবে। একসাথে প্রতিটি পোর্ট দিয়ে অধিক পরিমানের পেঁয়াজ দেশে প্রবেশ করায় দাম কমে যাওয়ায় অনেক আমদানি কারককেই লোকসান গুনতে হচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য