কঙ্গোতে স্বর্ণের খনি ধ্বসে অন্তত ২২ জন অবৈধ শ্রমিক নিহত হয়েছেন। দেশটির জনসংযোগমন্ত্রীর বরাত দিয়ে বৃহস্পতিবার খবরটি প্রকাশ করেছে সংবাদসংস্থা সিএনএন।

জনসংযোগমন্ত্রী স্টিভ এমবিকাইয়ি বলেন, বুধবার কঙ্গোর মিনিয়ামা প্রদেশের কাম্পেন শহরে অবস্থিত একটি অবৈধ খনিতে স্বর্ণ উত্তোলন করার সময় হঠাৎ খনির একটি অংশ ধ্বসে পড়ে। এ ঘটনায় অন্তত ১৪ জন ঘটনাস্থলেই মারা যান। কিন্তু উদ্ধারকর্মীরা পরে খনি থেকে আরও সাতটি মৃতদেহ উদ্ধার করে। এ সময় মারাত্মকভাবে আহত তিনজনের মধ্যে এক শ্রমিক হাসপাতালে নেওয়ার পর মারা যায়।

এমবিকাইয়ি জানান, নিহতদের মৃতদেহ সৎকারের সব খরচ কঙ্গো সরকার বহন করবে। সেই সঙ্গে আহতদের চিকিৎসা খরচও বহন করা হবে।

স্বর্ণসমৃদ্ধ কঙ্গোতে অনেকগুলো অবৈধ খনি ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে। খনিগুলোতে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা না থাকায় প্রতিবছরই স্বর্ণ উত্তোলন করতে গিয়ে শত শত শ্রমিক দুর্ঘটনার শিকার হন।

গত জুনে কঙ্গোর দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে অবস্থিত কলোয়েজিতে একটি কপার খনি ধ্বসে অন্তত ৩৬ জন অবৈধ শ্রমিক নিহত হয়েছিলেন। এ্যাংলো-সুইস মাইনিং জায়ান্ট গ্লেনকোরের তথ্যমতে, প্রতি বছর প্রায় দুহাজার অবৈধ খনি-শ্রমিক প্রবেশ করেন খনিজসমৃদ্ধ দেশটিতে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য