মোঃ লিহাজ উদ্দীন মানিক, বোদা পঞ্চগড়ঃ পঞ্চগড়ের বোদায় দিন দিন পেয়ারার চাষ বৃদ্ধি পাচ্ছে। উপজেলার কৃষকরা বাণিজ্যিক ভাবে পেয়ারা ফলের বাগান করে সফলতা পেতে শুরু করেছেন। ইতিমধ্যে পেয়ারার বাগানগুলোতে বাণিজ্যিক ভাবে পেয়ারার চাষ শুরু হয়েছে।

বোদার উৎপাদিত সু-স্বাধু পেয়ারা স্থানীয় বাজারগুলোতে চাহিদা মিটিয়ে বিভিন্ন জেলায় বিক্রি হচ্ছে। পেয়ারা চাষী উপজেলার বানিয়াপাড়া গ্রামের সাইদুর রহমান তার ঝলঝলী গ্রামে ১৪ বিঘা জমিতে পেয়ারার বাগান গড়ে তুলেছেন। তিনি পেয়ারা চাষ করে লাভবান হচ্ছেন।

তার উৎপাদিত পেয়ারা বর্তমানে স্থানীয় বাজারগুলোতে বিক্রি হচ্ছে। তিনি বলেন অন্যান্য চাষ করে লাভবান না হতে পেরে তিনি পেয়ারা চাষ শুরু করেছেন। বর্তমানে বাজারে তিনি চারশত টাকা মণ দরে পেয়ারা বিক্রি করছেন। তার দেখাদেখি এখন অনেকে পেয়ারা চাষ শুরু করেছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ আল মামুন অর রশিদ জানান, এ উপজেলায় পেয়ারা চাষ জনপ্রিয় হতে শুরু করেছে। বর্তমানে অনেক কৃষক পেয়ারা চাষ শুরু করেছেন। অনেক কৃষক পেয়ারা চাষ করার জন্য আমাদের সাথে যোগাযোগ রাখছেন।

আমরা উপজেলা কৃষি বিভাগ অন্যান্য ফলের পাশাপাশি পেয়ারা চাষে কৃষকদের উৎসাহিত করে আসছে। সেই সাথে তাদের বিভিন্ন প্রকারের পরামর্শ ও সহযোগিতা প্রদান করছেন। পেয়ারা চাষী উপজেলার বানিয়াপাড়া গ্রামের সাইদুর ঝলঝলী গ্রামে ১৪ বিঘা জমিতে পেয়ারার বাগান গড়ে তুলেছেন। পেয়ারা ফলের পাশাপাশি চারার ব্যবসায় করছেন ব্যাপক ভাবে।

পেয়ারা বাগান আশা জাগিয়েছে উপজেলার কৃষকদের। তাই এর পরিধি বাড়ানোর পরিকল্পনা করছেন তাঁরা। শুধু পেয়ারা উৎপাদনই নয়, গাছের চারা তৈরীতেও ঝুঁকছেন তাঁরা। এ ব্যাপারে পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছে উপজেলা কৃষি অফিস। কৃষির বহুমুখীকরণে সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছে কৃষি বিভাগ।

এ উপজেলায় ইতোপূর্বে ফুল চাষে সফলতা এসেছে। এখন হচ্ছে পেয়ারা ও কমলার চাষ। উপজেলায় পেয়ারা চাষের পরিধি বাড়াতে কৃষি বিভাগ সব রকমের পদক্ষেপ গ্রহণ করবে। বাজারে চাহিদা থাকায় সম্ভবানাময় ফল হিসেবে ভবিষ্যতে জেলার অন্য উপজেলাগুলোতেও পেয়ারা চাষ সম্প্রসারিত হবে। এতে এ অঞ্চলের মানুষের পুষ্টি চাহিদাও পূরণ হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য