দেশে ফেরত পাঠানো নিশ্চিত করতে ভারতের উত্তর প্রদেশ পুলিশকে বাংলাদেশি ও ‘অন্যান্য বিদেশিদের’ শনাক্ত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এ নির্দেশকে অনেকে আসামের এনআরসির উত্তর প্রদেশীয় সংস্করণ হিসেবে দেখছেন বলে ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে।

রাজ্যটির সব জেলা পুলিশ প্রধানের কাছে পাঠানো চিঠিতে এ পদক্ষেপকে রাজ্যটির অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তার জন্য ‘অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ’ বলে মন্তব্য করেছেন উত্তর প্রদেশ পুলিশের মহাপরিচালক।

কথিত ‘বিদেশিদের’ জন্য ভুয়া নথিপত্র তৈরিতে সহায়তা করেছেন, এমন সরকারি কর্মকর্তাদের খুঁজে বের করার নির্দেশও পুলিশকে দেওয়া হয়েছে।

বিজেপি শাসিত আসামে সংশোধিত নাগরিক তালিকা নিয়ে চলা বিতর্কের মধ্যেই এ নির্দেশনাটি এলো।

আসামের নাগরিক তালিকা বা এনআরসি (ন্যাশনাল রেজিস্ট্রার অব সিটিজেন্স) থেকে ১৯ লাখ বাসিন্দা বাদ পড়েছে। নিজেদের নাগরিকত্বের প্রমাণ দিতে না পারলে তাদের রাজ্যটি থেকে বের করে দেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

উত্তর প্রদেশ পুলিশকে রেল, বাস স্টেশনসহ পরিবহন কেন্দ্রগুলোতে এবং জেলাগুলোর আশপাশের বসতিগুলোতে চিরুনি অভিযান চালাতে এবং সন্দেহভাজন যে কারো নথিপত্র পরীক্ষা করে দেখার আদেশ দেওয়া হয়েছে।

কথিত ‘বিদেশিদের’ জন্য ভুয়া নথিপত্র তৈরিতে সহায়তা করেছেন, এমন সরকারি কর্মকর্তাদের খুঁজে বের করার জন্যও পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সব শ্রমিকের পরিচয়ের প্রমাণ রাখা তাদের দায়িত্ব বলে নির্মাণ কোম্পানিগুলোকে জানিয়ে দিয়েছে পুলিশ।

গত মাসে উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ আসামের এনআরসি প্রশংসা করে বলেছিলেন, প্রয়োজন হলে তার রাজ্যেও একই ধরনের পদক্ষেপ নিবেন তিনি।

আসামের এই পদক্ষেপ ভারতের ‘জাতীয় নিরাপত্তার’ জন্য গুরুত্বপূর্ণ বলে এক সাক্ষাৎকারে মন্তব্য করেছিলেন তিনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য