ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যের একটি জেলায় ভারী বৃষ্টিপাতের পর বন্যা ও দেয়াল ধসের পৃথক কয়েকটি ঘটনায় অন্তত ১২ জন নিহত হয়েছেন।

বুধবার রাজ্যটির পুনে জেলাতে প্রবল বৃষ্টিপাতের পর এসব ঘটনা ঘটেছে বলে এনডিটিভি জানিয়েছে।

ওই দিন রাতে ভারী বৃষ্টিপাতের পর জেলার বেশ কয়েকটি এলাকা পানিতে তলিয়ে যায়। এসব এলাকার পাঁচশোরও বেশি বাসিন্দাকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে বলে দমকলের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন। উদ্ধারকাজ অব্যাহত আছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

মুম্বাই-বেঙ্গালুরু জাতীয় মহাসড়কের পাশের খেদ-শিভাপুর গ্রামের একটি দরগায় ঘুমিয়ে থাকা পাঁচ ব্যক্তি ভারী বৃষ্টিপাতের পর পানির ঢলের সঙ্গে ভেসে যায় বলে জেলার ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তা সন্দিপ পাতিল জানিয়েছেন।

পুরান্দর এলাকার দুই ব্যক্তি নিখোঁজ রয়েছেন, এমন খবর পাওয়ার কথাও জানিয়েছেন তিনি।

পানিতে তলিয়ে যাওয়া আরনেশ্বর এলাকায় একটি দেয়াল ধসে নয় বছর বয়সী এক বালকসহ আরও পাঁচ জন নিহত হন, দমকলের প্রধান কর্মকর্তা প্রশান্ত রানপিসে জানিয়েছেন। এখানে আরও দুই জন নিখোঁজ রয়েছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

এর পাশাপাশি পানিতে তলিয়ে যাওয়া সাহাকার নগরের একটি স্কুলের কাছে এক ব্যক্তিকে মৃত অবস্থায় ও সিঙ্গাদ সড়কের কাছে ভেসে যাওয়া একটি গাড়ি থেকে আরেক ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধার করা হয় বলে জানিয়েছেন প্রশান্ত।

ওয়ানাওদি এলাকা থেকেও একজনের নিখোঁজ থাকার খবর পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

দমকল কর্মীদের পাশাপাশি জাতীয় দুর্যোগ মোকাবেলা বাহিনীর (এনডিআরএফ) সদস্যরাও ডুবে যাওয়া নিচু এলাকাগুলো থেকে লোকজনকে উদ্ধারে কাজ করছে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

নিহতদের জন্য গভীর শোক প্রকাশ করে রাজ্য সরকার পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছে বলে জানিয়েছেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফাডনাভিস।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য