কুড়িগ্রামের রাজারহাটে বাল্যবিয়ের অপরাধে বরের ১৫দিনের জেলসহ ৬জনের ৩৬হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। ২৩ সেপ্টেম্বর সোমবার বর আবু মোতালেবকে কুড়িগ্রাম জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, উপজেলার বিদ্যানন্দ ইউনিয়নের সুখদেব গ্রামের বাবলু মিয়ার কন্যা রেবা খাতুন(১৪) এর সাথে পার্শ্ববর্তী নাজিমখান ইউনিয়নের দেলোয়ার হোসেনের পুত্র আবু মোতালেবের (২৭) বিয়ে ঠিক হয়। গত ২২ সেপ্টেম্বর রোববার রাতে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করার সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাজারহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বর-কনেসহ বরযাত্রীদের আটক করে।

বাকীরা পালিয়ে যায়। পরে ওই স্থানেই ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহঃ রাশেদুল হক প্রধান আদালত বসিয়ে বাল্যবিবাহ নিরোধ আইনে বর আবু মোতালেবকে ১৫দিনের বিনাশ্রাম কারাদ- এবং কনের পিতা বাবলু মিয়া, বরযাত্রী হাফিজুর রহমান, আজিজুল ইসলাম, সফিকুল ইসলাম, এরশাদুল হক, রেজোওয়ান আলীর প্রত্যেককে ৬ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করে মুছলেখা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়।

আদালতের বিচারক কাজীর নাম জানতে চাইলে কনের পিতা বলেন, ওই এলাকার আশরাফ আলী মাষ্টারের পুত্র ফিরোজ আলম নামের একজন ভূয়া কাজী ওই বিয়ে সম্পন্ন করেছে। এ ছাড়া ওই ভূয়া কাজী এর আগেও এলাকায় বাল্যবিয়ে সম্পন্ন করে বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য