যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে একজন বিদেশি নেতার জন্য আয়োজিত বিরল এক জনসভায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী একই মঞ্চে অবস্থান করে পরস্পরের প্রশংসা করেছেন।

রোববার টেক্সাসের হিউস্টনে মোদীকে নিয়ে ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিনীদের আয়োজিত জনসভা ‘হাউডি মোদী!’তে ৫০ হাজারের মতো লোক উপস্থিত ছিল বলে জানিয়েছে বিবিসি, বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

ট্রাম্প সেখানে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এই জনসভাকে ‘ঐতিহাসিক অনুষ্ঠান’ হিসেবে অভিহিত করেছেন তিনি।

‘হাউডি মোদী!’ অনুষ্ঠানকে যুক্তরাষ্ট্রে কোনো বিদেশি নেতাকে দেওয়া বৃহত্তম সংবর্ধনাগুলোর মধ্যে একটি বলে বর্ণনা করা হচ্ছে।

মোদী ও ট্রাম্প মঞ্চে ওঠার আগে ৯০ মিনিটের একটি মনোজ্ঞ অনুষ্ঠানে ৪০০ জন শিল্পী অংশ নেন।

উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্যে ট্রাম্প বলেন, “আমেরিকার অন্যতম শ্রেষ্ঠ, সবচেয়ে একনিষ্ঠ এবং সবচেয়ে বিশ্বস্ত বন্ধু ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদীর সঙ্গে এখানে টেক্সাসে এসে অত্যন্ত রোমাঞ্চিত বোধ করছি।”

অপরদিকে তার ভাষণে মোদী হোয়াইট হাউসে ভারতের একজন ‘প্রকৃত বন্ধু’ আছে উল্লেখ করে ট্রাম্পকে “উষ্ণ, বন্ধুত্বপূর্ণ, সহজ, অত্যন্ত সক্রিয় ও অত্যন্ত বুদ্ধিমান” বলে বর্ণনা করেন।

“প্রধান নির্বাহী থেকে কামন্ডার ইন চিফ, শোবারঘর থেকে ওভাল দপ্তর, স্টুডিও থেকে বিশ্ব মঞ্চ- সবখানেই দীর্ঘস্থায়ী প্রভাব রেখেছেন তিনি,” বলেছেন মোদী।

ট্রাম্প জনসভাগুলোতে লোকজনের যে ধরনের উপস্থিতি ও সক্রিয়তা পছন্দ করেন হিউস্টনের জনসভাটি ঠিক তেমন ছিল, কিন্তু এখানে শ্লোগানগুলো নরেন্দ্র মোদীর নামে দেওয়া হচ্ছিল এবং এই জনসভায় ট্রাম্পের উপস্থিতি ছিল আমন্ত্রিত সুপারস্টারের মতো।

কিন্তু জনতা ট্রাম্পকেও হতাশ করেননি, ‘ইউএসএ!’, ‘ইউএসএ!’ শ্লোগানে জনতা তাকেও অভিবাদন জানিয়েছেন; ট্রাম্পের জনসভাগুলোতে এই শ্লোগানটিই সবচেয়ে বেশি শোনা যায় বলে জানিয়েছে বিবিসি।

এই সমাবেশে উভয় নেতারই লাভ হয়েছে, এমনটি বলা হচ্ছে। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের জন্য ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের দৌঁড়ে ভারতীয়-মার্কিনিদের নিজের পক্ষে টানার একটি সুযোগ, যে নির্বাচনে টেক্সাস লড়াইয়ের মূল কেন্দ্র হয়ে দাঁড়াতে পারে। অপরদিকে মোদীর জন্য জনতার সমর্থন ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে তার ছবি, নিজ দেশে তার অনুসৃত কঠোর নীতিকে কেন্দ্র করে ওঠা সমালোচনা পাশ কাটাতে সহায়তা করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রে সপ্তাহব্যাপী সফরে বাণিজ্য নিয়ে আলোচনা ও জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে ভাষণ দেওয়ার কথা রয়েছে মোদীর।

হিউস্টনের এনআরজি স্টেডিয়ামে এ অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়েই যুক্তরাষ্ট্র সফর শুরু করলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য