রংপুর-৩ আসনে উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ পেছানোর দাবি জানিয়ে অনশন কর্মসূচি পালন করেছে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ রংপুর মহানগর শাখা। রবিবার সকাল ১০টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত রংপুর প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান নিয়ে সংগঠনটি এ দাবি জানায়। এ সময় শারদীয় দুর্গোৎসব চলাকালীন ভোট প্রদানে বিঘ্নের আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন নেতৃবৃন্দ।

পরিষদের রংপুর মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক ধনজিত ঘোষ বলেন, আগামী ৪ অক্টোবর থেকে বোধনের মধ্য দিয়ে শারদীয় দুর্গোৎসব শুরু হবে। পরের দিন পূজার সপ্তমী। ওই দিন উপ-নির্বাচনের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হলে রংপুর সদর ও মহানগরীর হিন্দু সম্প্রদায়ের ৭০ হাজার ভোটারের ভোট প্রদানে বিঘ্ন ঘটতে পারে। ভোটের দিন সকল যানবাহন বন্ধ থাকে এবং অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভোট কেন্দ্র হয় যেখানে অনেক পূজা মণ্ডপও আছে।

অনশনে সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রংপুর মহানগরের সাধারণ সম্পাদক তুষার কান্তি মণ্ডল, রংপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি রশীদ বাবু, বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ রংপুর জেলার সিনিয়র সহ সভাপতি সুশান্ত ভৌমিক, রংপুর জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সদস্য দেবদাস ঘোষ দেবু প্রমুখ। সুত্রঃ ইত্তেফাক

এদিকে নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন প্রসঙ্গে রংপুর অঞ্চলের আঞ্চলিক নির্বাচন ও রিটার্নিং কর্মকর্তা জিএম সাহাতাব উদ্দিন সাংবাদিকদের বলেছেন, ভোটগ্রহণ পেছানোর বিষয়টি নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর করছে।

তবে এ আসনের প্রার্থীদের মধ্য থেকে এখনও কেউই হিন্দুধর্মীয় নেতাদের এই দাবির প্রতি সহমত পোষণ করেন নি।

উল্লেখ্য, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এরশাদের মৃত্যুতে আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ৫ অক্টোবর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। রংপুর সদর উপজেলা ও সিটি করপোরেশন নিয়ে গঠিত এ আসনের মোট ভোটার চার লাখ ৪২ হাজার ৭২ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার দুই লাখ ২১ হাজার ৩১০ জন এবং নারী ভোটার দুই লাখ ২০ হাজার ৭৬২ জন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য