হাত-পা যদি প্রয়োজনীয় ব্যায়াম না পায়, তা হলে তা ধীরে ধীরে দুর্বল হতে আরম্ভ করে। ঠিক সেই একই নিয়মে দুর্বলতা বাসা বাঁধতে আরম্ভ করে আপনার শরীরের একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অংশ নিতম্বেও। তারই প্রকাশ দেখা যায় হাঁটু আর কোমরের নিচের ব্যথায়।

বিশেষ করে যাঁরা দিনের অনেকটা সময় বসে কাটাতে বাধ্য হন, তাঁদেরই বেশি ভোগায় ডরম্যান্ট বাট সিনড্রোম নামের এই অসুখ, জানাচ্ছেন ওহায়ো স্টেট ইউনিভার্সিটির ওয়েক্সনার মেডিক্যাল সেন্টারের সঙ্গে যুক্ত বিশেষজ্ঞরা। যদি নিয়মিত ব্যায়াম করেন এবং গ্লুটস মাসলে শক্তির অভাব না থাকে, তা হলে নিতম্ব শক অ্যাবজ়র্বার হিসেবে কাজ করে। কিন্তু তা যদি দুর্বল হয়, তা হলে অতিরিক্ত পরিশ্রম বা টানা বসে থাকা কোনওটাই চলবে না।

আপনার গ্লুটসের মাসল শক্তিশালী করে তোলার জন্য স্কোয়াটস হচ্ছে আদর্শ ব্যায়াম। তবে স্কোয়াটস কিন্তু পেশাদারদের পরামর্শ নিয়ে তবেই অভ্যেস করা উচিত, তা না হলে কিন্তু উলটো পালটা চোট লেগে যেতে পারে। যাঁরা অনলাইন ভিডিয়ো দেখে ব্যায়াম করেন, তাঁরা অবশ্যই আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে এক্সারসাইজ় করবেন, তাতে সঠিক পশ্চারটা বোঝা যায়। সিঁড়ি দিয়ে যদি আপনি দ্রুত গতিতে ওঠা-নামা করতে পারেন, তা হলেও কিন্তু গ্লুটসের মাসল শক্তপোক্ত হয়ে ওঠে ক্রমশ। সেই সঙ্গে রাশ টানতে হবে খাওয়াদাওয়ার দিকেও। অতিরিক্ত চিনি, নুন, ভাজাভুজি ইত্যাদি খাওয়া থেকে দূরে থাকতে হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য