ঘোড়াঘাট (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: দিনাজপুর ঘোড়াঘাটে অবৈধ ভাবে গড়ে ওঠা ২৩টি কয়লা তৈরির চুল্লি ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিয়েছে বুধবার দুপুরে উপজেলা প্রশাসন ও ভ্রাম্যমান আদালাত। পাশাপাশি ফায়ার সার্ভিসের মাধ্যমে চুল্লিগুলোর ভেতরে থাকা কাঠগুলো ভিজিয়ে দেওয়া হয়েছে।

উপজেলা ভূমি অফিস সূত্রে জানা যায়, ঘোড়াঘাট উপজেলায় বিরাহিমপুর গুচ্ছগ্রামে একটি আম বাগানের মধ্যে চারদিকে টিনের বেড়া দিয়ে ২৩টি চুল্লি তৈরি করে দীর্ঘদিন থেকে কাঠ পুড়ে কয়লা তৈরির ব্যবসা চালিয়ে আসছিলো কিছু অসাধু ব্যবসায়ী। এ নিয়ে একাধিকবার বিভিন্ন পত্রিকায় সচিত্র সংবাদ প্রকাশ হয়।

এ সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার ভূমি অফিসের এসি ল্যান্ডের দায়িত্বে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ওয়হিদা খানম কারখানার মালিককে নোটিশ করে ডেকে এনে নিজ দায়িত্বে কারখানা ভেঙ্গে ফেলার নির্দেশ দেন।

নির্বাহী অফিসের নিকট কারখানার কারখানার মালিক নিজ দায়িত্বে ভেঙ্গে ফেলার প্রতিশ্রুতি দেন। তবে কারখানার মালিকের দেওয়া ওয়াদা মোতাবেক নিজ দায়িত্বে কয়লা তৈরির কারখানা ভেঙ্গে না ফেলায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ওয়াহিদা খানম ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন।

একই দিন ভ্রাম্যমান আদালত বিরাহিমপুর গুচ্ছগ্রামে ঘোড়াঘাট দিনাজপুর সড়কের পাশে সরকারি হেলিপ্যাডের জায়গায় দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কে সম্প্রসারণ কাজে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান জায়গাটি চারিদিকে টিনের বেড়া দিয়ে ঘিরে রাস্তার কাজের ইট ও যাবতীয় মালামাল রাখায় উপজেলা প্রশাসন নোটিশের মাধ্যমে মালামাল গুলো সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেন। কিন্তু ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান নোটিশকে অগ্রাহ্য করায় ভ্রাম্যমান আদালত সঙ্গীয় পুলিশফোর্স সহ টিনের বেড়াগুলো ভেঙ্গে ফেলে এবং ১৫ দিনের মধ্যে মালামাল সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য