বিরল (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ আগামী ৪ অক্টবর ষষ্টী পুজার মধ্যে দিয়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় শারদীয় দূর্গোৎসব অুনষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। তাই দিনাজপুরের চারিদিকে চলছে এখন দুর্গাপূজার প্রস্তুতি বাঙালি হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গাপূজাকে বরণ করে নেওয়ার জন্য এখন দিনখন গুণার পালা। তবে এবারে সর্ব বৃহৎ প্রতিমা তৈরী করছে বিরল কেন্দ্রীয় দুর্গা মন্দিরে।

দিনাজপুরে এবার প্রায় ১২শ পূজামন্ডপে দুর্গাপূজা উৎযাপন হবে। যতদিন ঘনিয়ে আসছে ততই মানুষের মাঝে দেখা দিয়েছে পূজার প্রস্তুতি। তৈরী হচ্ছে গেট, মন্ডপ আর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নের কাজ এগিয়ে চলছে। মন্ডপে মন্ডপে প্রতীমা তৈরীর কাজ শেষ হয়েছে। শুধুমাত্র রঙের কাজ বাকী। পরিবারের সকল সদস্যরা পূজা পালনের প্রস্তুতি নিয়ে এগিযে যাচ্ছে বলে জানান দিনাজপুরের পুজা আয়োজক কমিটি বৃন্দরা। যতই পূজার দিন ঘনিয়ে আসছে চলছে প্রস্তুতি। প্রতীমার কাজ শেষ হলেও অনেক কাজ এখনও বাকী।

প্রতিটি মন্ডপের প্রতিমায় থাকছে নতুন রুপ ও রঙের বৈচিত্র যা দর্শকদের আরো বিমোহিত করবে। প্রতিমাগুলোকে স্বর্গীয় আভায় রুপায়নে শৈল্পিক ছোঁয়ার মাধ্যমে চলছে এক ধরনের প্রতিযোগিতা। আর এমন প্রতিযোগিতায় দেবী দর্শণে বিপরীত চিত্র উল্লেখিত হচ্ছে বলে মত সনাতন ধর্মাবলম্বী ও মন্ডপের আয়োজক।

মহালয়ার পর থেকে পূজার আমেজ বৃদ্ধি পাবে তখন কেনাকাটায় উপচে পড়বে শহরের শপিং মলগুলোতে। জনগণ সরকারের নিরাপত্তা ব্যবস্থার প্রতি সন্তোষ প্রকাশ করেন। সরকারের নিরাপত্তা ব্যবস্থার কারণে এবারও মানুষ আতংক ছাড়াই দিনাজপুরে দুর্গাপূজা পালন করবে।

জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি স্বরূপ বকসী বাচ্চু বলেন, অসাম্প্রদায়িত সম্প্রীতির এই জেলায় এবারে ১২শ’র অধিক মন্ডপে দূর্গাপূজার আয়োজন হচ্ছে বলে জানিয়েছে পূজা উদযাপন পরিষদের এই নেতা। নিরাপত্তার জন্য জেলা প্রশাসন, পুলিশ বিভাগের সাথে বৈঠকের পাশাপাশি পূজা উদযাপন পরিষদের প্রতিটি কমিটিকে নিজ দায়িত্বে পাহারা দেয়ার জন্য বলা হয়েছে।

প্রতিবারের ন্যায় এবারও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রেখে হিন্দু-মুসলমান সকলেই দুর্গাপূজার আনন্দ উপভোগ করবেন এমনটি প্রত্যাশা দিনাজপুরবাসীর।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য