প্রচণ্ড দাবানলের ধোঁয়ায় বাতাস দূষিত হয়ে পড়ায় মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়ার হাজার হাজার স্কুল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এতে কেবল মালয়েশিয়াতেই ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে প্রায় ১৭ লাখ শিক্ষার্থী। আর ইন্দোনেশিয়ার কত শিক্ষার্থী এর কবলে পড়েছে তা এখনও স্পষ্ট নয় বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রা ও বর্নিও দ্বীপের বনাঞ্চলে সৃষ্ট এই দাবানলের ধোঁয়ায় আক্রান্ত হয়েছে মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুরও।

কৃষি কাজের জন্য বনাঞ্চল পরিস্কার করতে গিয়েই মূলত আগুন লেগেছে ইন্দোনেশিয়ার বনাঞ্চলে। আগুন মোকাবিলায় হাজার হাজার নিরাপত্তা কর্মকর্তার পাশাপাশি পানিবাহী বিমান মোতায়েন করেছে জাকার্তা।

মালয়েশিয়ার প্রায় আড়াই হাজার স্কুল বৃহস্পতিবার বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে রাজধানী কুয়ালালামপুরের তিনশো স্কুলও রয়েছে। বর্নিও দ্বীপে মালয়েশিয়ার শহর কুচিংয়ে স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার সকালে বাতাস দূষণের মাত্রা ২৬৭তে রেকর্ড করা হয়। এই মাত্রাকে চরম অস্বাস্থ্যকর পর্যায়ে ফেলা হয়।

ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রায় দ্বীপে বৃহস্পতিবার শত শত স্কুল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে রিয়াও প্রদেশের একটি জেলাতেই আটশো স্কুল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়া বর্নিওর কালিমান্তান প্রদেশে প্রায় ১৩০০ স্কুল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

ইন্দোনেশিয়ার দাবানলে প্রতিবছরই দক্ষিণপূর্ব এশিয়া জুড়ে ধোঁয়া ছড়িয়ে পড়ে। তবে ২০১৫ সালের পর এবারই সবচেয়ে বেশি পরিস্থিতি খারাপ হয়েছে। বৈশ্বিক তাপমাত্রা বৃদ্ধি এই দাবানলে নতুন উদ্বেগ তৈরি করেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য