দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরে পরকিয়া প্রেমে জড়িয়ে নিজের ১১ বছর বয়সি প্রতিবন্ধী মেয়ে নুর জাহান হত্যা মামলায় বাবা নুর ইসলামকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডে দন্ডিত করেছেন আদালতের বিচারক।

রোববার (১৫ সেপ্টেম্বর) দুপুর ৩টায় দিনাজপুরের অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালত (৩) এর বিচারক মোঃ আনোয়ারুল হক এই রায় ঘোষণা করেন।

অন্যদিকে দোষ প্রমানিত না হওয়ায় কথিত প্রেমিকা আরেফা বানু কৈতরি এবং নুর ইসলামের ছেলে জুয়েল বাবুকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে।

মামলার বিবরনে জানা গেছে, ২০১০ সালে দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার দিওড় গ্রামের বাসিন্দা নুর ইসলাম পরকিয়া প্রেমে জড়িয়ে নিজ প্রতিবন্ধী মেয়ে নুর জাহানকে গলায় গড়না পেচিয়ে হত্যা করেন। নাতনিকে হত্যার ঘটনায় জামাই নুর ইসলাম, নাতি জুয়েল বাবু এবং জামাইয়ের কথিত প্রেমিকা আরেফা বানু কৈতরির বিরুদ্ধে মামলা করেন শ্বশুর সমসের আলী।

আদালতে ১৫জনের স্বাক্ষ্য শেষে দোষি প্রমানিত হওয়ায় ঘাতক পিতাকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড এবং ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৬ মাসের কারাদন্ডে দন্ডিত করেন বিচারক।

মামলাটি সরকার পক্ষে পরিচালনা করেন অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউট (এপিপি) আতাউর রহমান আতা এবং আসামি পক্ষে শাহিনুর ইসলামসহ অন্যান্য আইনজীবী।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য