আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধাঃ গাইবান্ধা সদর উপজেলার সাহাপাড়া ইউনিয়নের ভবানীপুর কামারপাড়া গ্রামে রনজিৎ চন্দ্র কর্মকারের বাড়ি সংলগ্ন শারদীয় দুর্গাপূজা মন্ডপে শনিবার ভাংচুর করেছে স্থানীয় ও বহিরাগত ভাড়াটিয়া একদল দুর্বৃত্ত। এঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। ঘটনার পর পুলিশ ৪ দুর্বৃত্তকে আটক করেছে।

মামলার বিবরণ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, ভবানীপুর কামারপাড়া গ্রামে রনজিৎ চন্দ্র কর্মকারের সাথে দীর্ঘদিন ধরে প্রতিবেশি আব্দুল আউয়াল ও আব্দুল মান্নানের জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে।

এব্যাপারে আদালতে মামলা বিচারাধীন রয়েছে। এরই জের ধরে ওইদিন প্রকাশ্য দিবালোকে লাঠিসোটা এবং ধারালো অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে আব্দুল আউয়াল ও আব্দুল মান্নানের নেতৃত্বে একদল দুর্বৃত্ত রনজিৎ চন্দ্র কর্মকারের বাড়ি সংলগ্ন দুর্গা পূজা মন্ডপ ও বাড়ি ঘরে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি করে।

তারা মন্ডপের শিব, লক্ষ্মী, সরস্বতীর মুর্তি ও বাড়ির আসবাবপত্র ভাংচুর করে। ঘটনার পর পূজা উদযাপন পরিষদ নেতৃবৃন্দ ও প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ ঘটনায় থানা পুলিশ তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে ৪ দুর্বৃত্তকে আটক করেছে।

আটক দুস্কৃতিকারীরা হচ্ছে- আব্দুল আউয়াল, আব্দুল মান্নান, কাজী মো. আশরাফুল আলম ও মৌলভী মো. মাসুদ রানা। ঘটনার পর ক্ষতিগ্রস্ত রনজিৎ চন্দ্র কর্মকার ২৬ জনের নাম উলে¬খ করে এবং অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামী করে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

সদর থানার অফিসার ইনচার্জ খান মো. শাহরিয়ার জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনার পর পরই ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক দীপক কুমার পাল অনতিবিলম্বে জড়িত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য