দিনাজপুর সংবাদাতাঃ সনাতন ধর্মাবলম্বলীদের বড় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে দিনাজপুরের বীরগঞ্জে প্রতিমা তৈরির ধূম পড়েছে। মৃৎ শিল্পীদের (কারিগর) দম ফেলার সময় নেই। ইতোমধ্যেই প্রতিমার মাটির কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে। এরপর রঙ ও সাজসজ্জার কাজ। এ অঞ্চলে প্রতিমা তৈরির কারিগর মূলত দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা।

এসব কারিগররা দিনাজপুরের বিভিন্ন মন্দিরের ভিতরে প্রতিমা তৈরি করছেন। কেউ কেউ মন্দিরের ভেতরে প্রতিমা তৈরি করছে। বৃহস্পতিবার বিকালে বীরগঞ্জ পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের শিমুল তলা কালি মন্দির,নতুনপাড়া মন্দির, বিষ্ণু মন্দির,সনাতনপাড়া মন্দির, ১নং ওয়ার্ডের কলেজ পাড়া মন্দির, কেন্দ্রীয় মন্দির, মহিলা ডিগ্রী কলেজ মাঠ ও কুমারপাড়া মন্দির গিয়ে দেখা গেছে, প্রতিমা তৈরির কাজে ব্যস্ত মূৎশিল্পী (কারিগর) সাগর পাল (২৭) সেখানে উপজেলাও আশেপাশের ২৫ মাইল, প্রেমবাজার, নতুনপাড়া, খানসামাসহ বিভিন্ন স্থানে থেকে আসা লোকজন প্রতিমার দরদাম করছেন। কেউ অগ্রিম দিচ্ছেন।

আবার অনেকে পূর্বেই দরদাম ঠিক করে প্রতিমা তৈরির কাজ করছেন। বাশ – কাঠ -রশি- কাদা মাটি দিয়ে তৈরি প্রতিমাগুলো দেখতে ভিড় জমাচ্ছেন সনাতন ধর্মের লোকজন।

জানা গেছে, বীরগঞ্জ উপজেলার সুজালপুর ইউনিয়নের বলরাম পালের ছেলে সাগর পাল দীর্ঘ ১০ বছর ধরে তার ছোট দুই ভাই মাহাদেব পাল ও জয়দেব পালকে সঙ্গে নিয়ে প্রতিমা তৈরি করছেন।

এ বছরেও ৮টি স্থানে প্রতিমা তৈরি করছেন তিনি। ১৬টি প্রতিমা সেট তৈরি করেছেন। প্রতিটি সেটে দুর্গাদেবীর সঙ্গে রয়েছে অসুর,সিংহ,মহিষ, গনেশ, সরস্বতী,কার্তিক, লক্ষী ও মহাদেব প্রতিমা।

বীরগঞ্জ পৌরসভার দৈনিক বাজার কেন্দ্রীয় মন্দিরের সভাপতি রতন কুমার সাহা রেন্টু জানান, প্রতি বছর ধর্মীয় সম্প্রতি বজায় রেখে সর্বজনীন দুর্গা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। এ উৎসবকে কেন্দ্র করে ইতোমধ্যেই মন্ডপ কমিটি এখন প্রতিমা স্থাপনের কাজ করছে।

এ লক্ষ্যেই এখন ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে প্রতিমা তৈরির কারিগর। এ বছর আইনশৃঙ্খলা উন্নতি আছে। তাই দুর্গা উৎসবে সবার মধ্যে আনন্দ অনেক বেড়ে যাবে। উলে¬খ্য, সনাতন ধর্মালবম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গাপূজা আগামী ৪ অক্টোবর শুরু হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য