মোঃ জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) সংবাদদাতা ॥ নীলফামারীর সৈয়দপুর শহরের সর্ববৃহৎ ও প্রাচীন কবরস্থান হাতিখানা থেকে আলোক সঞ্চারের জন্য স্থাপিত সোলার লাইট প্যানেল চুরি হয়েছে। ৮ সেপ্টেম্বর গভীর রাতে কবরস্থানের ভিতর থেকে লাইটের খুটি ভেঙ্গে সোলার প্যানেল ও লাইট চুরি করে নিয়ে যায় অজ্ঞাতনামা চোর।

পরের দিন সকালে কবরস্থানের কেয়ার টেকার আক্কাস আলী গিয়ে চুরির ঘটনাটি জানতে পারে। পরে কবরস্থান কমিটির লোকজন খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক উপস্থিত হয়ে চুরির বিষয়টি সরেজমিনে প্রত্যক্ষ করেন এবং সৈয়দপুর থানায় এ ব্যাপারে একটি সাধারণ ডায়েরী করেছেন।

একই রাতে কে বা কাহারা কবরস্থান সংলগ্ন কবর খোদক নুরুল মন্ডলের রুমের দরজা বাইর থেকে আটকানো হয়েছিল। ধারণা করা হচ্ছে যে, চোরেরা সোলার প্যানেল চুরির পূর্বে একাজ করেছে।
এতে বলা হয়েছে যে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অনুদানে হাতিখানা কবরস্থান আলোকিত করার জন্য ১৫টি সোলার প্যানেল সৈয়দপুর পৌরসভা কর্তৃক স্থাপন করা হয়। এগুলোর মধ্য থেকে একটির লাইট ও প্যানেল চুরি হয়েছে।

এ চুরির ঘটনায় সৈয়দপুর জুড়ে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। সর্বত্র আলোচিত হচ্ছে যে, মানুষের মৃত্যুর ভয়টুকুও আজ হারিয়ে গেছে। তারা কবরস্থান থেকেও চুরি করতে দ্বিধা করছেনা। এতে যেন কবরবাসীও চোরদের হাত থেকে নিরাপদ নয়। এদিকে অভিযোগ দেয়ার পরও চুরির ঘটনার কোন হদিস করতে না পারায় আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে সৈয়দপুরবাসীর মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

এ ব্যাপারে কবরস্থান কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আসগার আলী জানান, কবরস্থান থেকে যদি জিনিসপত্র চুরি হয় তাহলে মানুষ বাসাবাড়িতে কিভাবে নিরাপদে থাকবে। আমরা দ্রুত এ ব্যাপারে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

সৈয়দপুর থানা অফিসার ইনচার্জ শাহজাহান পাশা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, অভিযান অব্যাহত রয়েছে। চোর ও সোলার প্যানেলসহ লাইট দ্রুততম সময়ে উদ্ধার করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য