কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ফসলের সাথে শত্রুতা করে রোপনকৃত আমনের চারা তুলে ফেলেছে প্রতিপক্ষ। এ বিষয়ে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার কচাকাটা ইউনিয়নের নায়কের গ্রামে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ও অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, নায়কের হাট (ছোট ছড়ার পাড়) গ্রামের মফিজুল ইসলাম তার ক্রয়কৃত জমি ৪০৮ খতিয়ানের, ২৩৯৯ দাগের, ৩৮ শতক জমি দীর্ঘদিন ধরে ভোগদখল করে আসছিল।

পরে চলতি মৌসুমেও আমনের চারা রোপন করে মফিজুল। কিন্তু ৪ সেপ্টেম্বর রাতের অন্ধকারে নায়কের হাটের মৃত আবদুল জলিলের ছেলে মুকুল মিয়া, ডাঙ্গারপাড় গ্রামের মৃত ডা. আবদুল মজিদের ছেলে আলমগীর, ঝিঞ্জিরা বালার চরের আবদুল হামিদের ছেলে আসাদ আলী, নায়কের হাট গ্রামের সাহাদ আলীর ছেলে জাহাঙ্গীর, কুড়িয়াবাধা গ্রামের এলাবশেখের ছেলে হাজির রহমান, নেল্লা মামুদের ছেলে নজরুল ইসলাম, চর বিষ্ণপুর গ্রামের মেছের আলীর ছেলে জিয়াউলসহ ওই জমিতে রোপন করা আমন ক্ষেতের চারাগুলো উপড়ে ফেলে কাঁদা মাটিতে পুঁতে রাখে। পরদিন সকালে মফিজুল ইসলাম খবর পেয়ে খেতের অবস্থা দেখেন এবং ইউপি চেয়ারম্যনসহ স্থানীয়দের অবহিত করেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত মুকুল মিয়ার সাথে যোগাযোগ করতে একাধিকবার মোবাইলে ফোন করলেও ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। তবে অভিযুক্ত হাজির রহমান বলেন আমরা এ ব্যাপারে কিছুই জানি না। কচাকাটা ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল বলেন, সরেজমিন ঘুরে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে আইনি সহায়তা নেয়ার জন্য পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য