ভারতের আসাম রাজ্য নাগরিকদের নামের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করার বাদ পড়া অধিবাসীদের সম্ভাব্য অনুপ্রবেশ ঠেকাতে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী সীমান্তে সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থায় রয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সীমান্তে বিজিবির সদস্য সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে।

কুড়িগ্রাম জেলার নাগেশ্বরী, ভুরুঙ্গামারী ও রৌমারী উপজেলার সঙ্গে ভারতের আসাম রাজ্যের সীমান্ত রয়েছে। এছাড়াও জেলার ফুলবাড়ী, উলিপুর ও রাজীবপুর উপজেলার সঙ্গে ভারতের সীমান্ত রয়েছে। তাই এসব উপজেলায় পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সীমান্তের প্রতিটি কোনায় বিজিবির সদস্য সংখ্যা বাড়ানোর পাশাপাশি টহল বাড়ানো হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ী উপজেলা ও নাগেশ্বরী এবং ভুরুঙ্গামারী উপজেলার কিয়দংশের দায়িত্বে থাকা লালমনিরহাট বিজিবি ১৫ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল আনোয়ার-উল আলম বলেন, ‘আমাদের ১৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধীন সীমান্তে আমরা সর্বাবস্থায় সতর্ক রয়েছে। যে কোন ধরণের অবৈধ অনুপ্রবেশ, পুশ-ইন কিংবা চোরাকারবারিদের তৎপরতা ঠেকাতে আমরা বিওপি গুলোতে কঠোর নির্দেশনা দিয়েছি।’

নির্দেশ মোতাবেক প্রতিটি ক্যাম্পের বিজিবি সীমান্তে দায়িত্ব পালন করছে।

প্রসঙ্গত, ভারতের আসামে চূড়ান্ত নাগরিক তালিকা (এনআরসি) থেকে বাদ পড়েছেন রাজ্যের প্রায় ১৯ লাখ ৬ হাজার ৬৫৭ জন মানুষ। শনিবার (৩১ আগস্ট) স্থানীয় সময় সকাল দশটায় অনলাইনে ও এনআরসি সেবাকেন্দ্রে এই তালিকা প্রকাশ করা হয়।

এক বিবৃতিতে এনআরসি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, চূড়ান্ত তালিকায় মোট আবেদনকারী ৩ কোটি ৩০ লাখ ১৭ হাজার ৬৬১ জনের মধ্যে নাগরিক হিসেবে স্থান পেয়েছেন ৩ কোটি ১১ লাখ ২১ হাজার ৪ জন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য