দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরে কাহারোল উপজেলার কাহারোল বাজারসহ এলাকার বিভিন্ন হাটবাজারে নিষিদ্ধ পলিথিনের ব্যবহার দিন দিন বেড়েই চলেছে।

এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ীরা বেপোরয়া ভাবে নিষিদ্ধ পলিথিন কাহারোল উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় এনে তাদের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। দেখার কেউ নেই?

কাহারোল উপজেলা ২০টি হাট বাজারের মধ্যে ১০মাইল বাজার, ১৩মাইল গড়েয়াহাট, রামপুর বাজার, পীরের হাট, বটতলীহাট, মুটুনীহাট, শুকানদিঘীহাট, ভেন্ডাবাড়ী হাট, বগদইড়হাট, বুলিয়াবাজার, কামোড়হাট, উপুড়পুরি হাট, বলেয়াহাট, সাধুর বাজার ও জয়নন্দহাট সহ এলাকার বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে অবস্থিত দোকানে বিক্রি হচ্ছে এই নিষিদ্ধ পলিথিন।

উপজেলার বিভিন্ন হোটেল, চিড়া, মুড়ি, মিষ্টি, মাছ, সবজি ও মুদির দোকানে বেশি ব্যবহার করা হচ্ছে। ভোক্তারা দোকান থেকে কোন পণ্য কিনলেই দোকানদাররা পলিথিনের প্যাকেটে ভরে সরবরাহ করছে ক্রেতাদের। ভোক্তারা সেই পলিথিনের প্যাকেটগুলো ব্যবহার শেষে যেখানে সেখানে ফেলে দিচ্ছে। এতে পরিবেশের মারাত্মকভাবে ক্ষতি হচ্ছে।

এ ছাড়া বর্জ্য পলিথিন মাটিতে পড়ে একদিকে যেমন মাটির উর্বর শক্তি নষ্ট হচ্ছে, তেমনি ড্রেন, খাল-বিল সহ নিষিদ্ধ পলিথিনের প্যাকেট পড়ে পানির স্বাভাবিক গতি বাধা গ্রস্ত হচ্ছে। যেসব পলিথিন সাধারনত ব্যবহার করা হচ্ছে সেই গুলো অত্যান্ত নি¤œমানের। এজন্য মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুঁকি রয়েছে বলে পরিবেশবিদ গন মনে করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য