দিনাজপুর সংবাদাতাঃ ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলনের মাধ্যমে একে অপরের সাথে এবং এক দেশের শিক্ষার্থীদের সাথে অন্য দেশের শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন ধরনের অভিজ্ঞতা শেয়ারের মাধ্যমে দক্ষতা বৃদ্ধি পাবে।

আন্তর্জাতিক ছায়া জাতিসংঘ কনফারেন্সে দেশি বিদেশী প্রায় ২০০ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেছে, যা দেখে আমি খুশি, কারণ তরুণরাই বর্তমান বিশ্বের মূল চালিকাশক্তি।

এ ধরণের অনুষ্ঠান আয়োজনে ধন্যবাদ জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে সকল ধরণের সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (হাবিপ্রবি) তিনদিনব্যাপী আন্তজার্তিক ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলন উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির ভাষনে হাবিপ্রবি’র ভিসি প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেম উপর্যুক্ত বক্তব্য রাখেন।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় হাবিপ্রবি’র অডিটোরিয়াম-২তে এ সম্মেলনের উদ্বোধন করা হয়। উক্ত সম্মেলনে বাংলাদেশসহ ৬ টি দেশের প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করেছে।

সম্মেলনে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর ড. বিধান চন্দ্র হালদার, রেজিস্ট্রার প্রফেসর ডা. মো. ফজলুল হক (বীর মুক্তিযোদ্ধা), হিসাব শাখার পরিচালক প্রফেসর ড. মোঃ শাহাদৎ হোসেন খান, আইকিউএসি এর পরিচালক প্রফেসর ড. বিকাশ চন্দ্র সরকার, প্রক্টর প্রফেসর ড. মো. খালেদ হোসেন, ম্যানেজমেন্ট বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মো.জাহাঙ্গির কবির, এইচএসটিইউ মডেল ইউনাইটেড নেশন এর সভাপতি, সাধারন সম্পাদক সহ অন্যান্য সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আন্তর্জাতিক ছায়া জাতিসংঘ কনফারেন্সের আয়োজনে থাকছে পার্টিসিপ্যান্ট সার্টিফিকেট প্রদান, বিভিন্ন ডেলিগেট এ্যাওয়ার্ড প্রদান, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, প্লোবাল ভিলেজ, গ্রান্ড ডিনার, সারপ্রাইজিং ইভেন্টসহ আরও নানা চমক।

উল্লেখ্য, হাবিপ্রবি ছায়া জাতিসংঘ সংস্থা (এইচএসটিইউ মডেল ইউনাইটেড নেশন) ২০১৭ সালে তাদের যাত্রা শুরু ক

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য