প্রতিদিন সঠিক পরিমানে সুষম এবং পুষ্টিকর খাবার গ্রহন করুন। প্রতিদিন আপনার ওজন,উচ্চতা এবং কাজের ধরণ অনুযায়ী পানি পান করুন।চুল এবং ত্বকের স্বাস্থ্য ভালো রাখার জন্য পেটের স্বাস্থ্য ঠিক রাখার বিকল্প নেই। আর এই জন্য প্রতিদিন টক দই এবং আঁশ সমৃদ্ধ খাবার খেতে হবে।আঁশ বা ফাইবারের চাহিদা পূরণ করার জন্য প্রতিদিন শাকসবজি এবং ফলমূল খেতে হবে।

আপনার খাদ্য তালিকায় ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার রাখুন নিয়মিত। আর এই জন্য প্রতিদিন টক ফল বা চিনি ছাড়া কমলা,মালটা,আঙ্গুর বা আনারসের জুস রাখুন খাদ্য তালিকায়। সপ্তাহে অন্তত দুই দিন খাদ্য তালিকায় ফ্যাটি ফিস রাখুন। যা,ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিডের উৎস এবং ত্বক এবং চুল উভয়ের জন্য ভালো।

প্রতিদিন কিছুটা হলেও বাদাম খান। সেটা,কাঠ বাদাম,কাজু বাদাম বা আখরোট যেকোনো বাদামই হতে পারে। বাদামে ওমেগা ফ্যাটি এসিড,এন্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে যা চুল এবং ত্বকের জন্য ভালো। বিটা ক্যারোটিন সমৃদ্ধ খাবার যেমন: টমেটো,মিষ্টি আলু,পালংশাক এই ধরণের খাবার নিয়মিত গ্রহন করলে ত্বক এবং চুলের স্বাস্থ্য ভালো থাকে।

প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমানে প্রোটিন বা আমিষ জাতীয় খাবার গ্রহন করুন।
যাদের এনিমিয়া আছে তারা আয়রন,ফোলিক এসিড এবং ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার যেমন : মাছ,রেডমিট,কলিজা,বিভিন্ন রকম বীচি জাতীয় খাবার,ডাল,পালংশাক,সবুজশাক, গুড়,কলা,টক ফল এই খাবার গুলো নিয়মিত গ্রহণের চেষ্টা করবেন।

যাদের চুল পড়ার সমস্যা বা ত্বকের নানাবিধ সমস্যা আছে তারা উচ্চ রক্তচাপ বা অন্য কোন সমস্যা না থাকলে প্রতিদিন একটি করে কুসুমসহ ডিম খাবেন।ডিমের কুসুমে থাকা বায়োটিন চুল এবং স্কিনের জন্য খুব দরকারি পুষ্টি উপাদান। সম্ভব হলে প্রতিদিন অন্তত এক বেলা স্যুপ জাতীয় খাবার খাবেন।চিনির তৈরি খাবার,ফ্রাইড আইটেম,অতিরিক্ত মসলা জাতীয় খাবার পরিহার করুন।
অযথা দুশ্চিন্তা পরিহার করুন।

  • রাত জাগবেন না এবং প্রতিদিন অন্তত ৭-৮ ঘন্টা ঘুমাবেন।
  • ৬ মাস পর পর কৃমির মেডিসিন গ্রহন করুন।
  • বাইরে বের হলে চুল ঢেকে বের হন। আর স্কিন সুরক্ষায় ছাতা,সানব্লক এবুং সান গ্লাস এই তিনটি জিনিস ব্যবহার করুন।
  • ভালো থাকুন,সুস্থ থাকুন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য