রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালের ড্রেন থেকে এক নবজাতক শিশুর মরদেহ উদ্ধার হয়েছে। বৃহস্পতিবার সাড়ে ১২টার দিকে হাসপাতালের পিছনে পানির ট্যাংক সংলগ্ন ড্রেনের কাছ থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

রেজওয়ান হোসেন নামে স্থানীয় এক যুবক জানান, সকালে হাসপাতালের পিছনে পোস্ট অফিস সংলগ্ন পানির ট্যাংকির কাছে ড্রেন থেকে কাপড়ে মোড়ানো নবজাতকটির মরদেহ উদ্ধার করে কালু নামে এক প্রতিবন্ধী। পরে বিষয়টি পুলিশকে অবগত করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, হাসপাতালের পিছনে ময়লা ফেলার পাইপের নিচের মুখ পরিস্কার করে এক অজ্ঞাত মহিলা এসে মরদেহটি ড্রেনে ফেলে দিয়ে চলে যান। পরে প্রতিবন্ধী কালু নবজাতকের মরদেহটি দেখতে পেয়ে ড্রেন থেকে উপরে তুলে আনেন। শিশুটির বয়স ৮ থেকে ৯ মাস হতে পারে বলেও জানান তিনি।

স্থানীয়দের দাবি, হাসপাতাল থেকে নবজাতক শিশুটির মরদেহ বাইরে ফেলে দেওয়া হয়েছে। ময়লা আবর্জনার স্তুপে ভরা হাসপাতালের পিছনে অনেকেই খেয়াল রাখে না। একারণে কেউ হয়তো এ নবজাতকের মৃত্যু নিশ্চিত হবার পর ফেলে দিয়েছে। এ কাজের সঙ্গে হাসপাতালের পরিচ্ছন্নকর্মীরা জড়িত থাকতে পারে বলে অনেকে মনে করছেন।

এ ব্যাপারে রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে কেউ কোন মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য