তেহরানের ওপর আরোপিত সব নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা না পর্যন্ত ইরান যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কোন বৈঠক করবে না বলে জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি।

পরিস্থিতি ঠিক থাকলে ইরান পরমাণু চুক্তি নিয়ে সৃষ্ট অচলাবস্থা অবসানে প্রেসিডেন্ট রুহানির সঙ্গে বৈঠক করতে প্রস্তুত, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প একথা জানানোর একদিন পর মঙ্গলবার ওই জবাব দেন রুহানি; জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

সোমবার জি-৭ সম্মেলনকালে এক সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প ওই কথা জানিয়েছিলেন।

ইরানের সঙ্গে বিশ্বের শক্তিধর ছয়টি দেশের ২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত পারমাণবিক চুক্তি থেকে গতবছর ট্রাম্প সরে আসার পর থেকেই যুক্তরাষ্ট্র-ইরানের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি হতে শুরু করে।

সম্প্রতি ইরানের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপকে কেন্দ্র করে দুই দেশের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এই পরিস্থিতিতেই দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা নিরসনে ট্রাম্প ও রুহানির মধ্যে বৈঠকের উদ্যোগ নিয়েছেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ।

রুহানি জানিয়েছেন, ইরান সবসময় আলোচনার জন্য প্রস্তুত।

“কিন্তু প্রথমে ইরানের ওপর আরোপিত সব অবৈধ, অন্যায্য ও পক্ষপাতদুষ্ট নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের পদক্ষেপ নেওয়া উচিত,” বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

মার্কিন নিষেধাজ্ঞার ফলে ইরানের যে ক্ষতি হয়েছে তার ক্ষতিপূরণ হিসাবে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার সম্ভাবনা ফ্রান্সের বিয়ারিৎজের ওই সংবাদ সম্মেলনেই নাকচ করেছেন ট্রাম্প।

সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ জানিয়েছিলেন, ইরানের প্রেসিডেন্ট রুহানিও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠকে বসতে প্রস্তুত। আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই এ বৈঠক হতে পারে বলেও জানিয়েছিলেন তিনি।

ট্রাম্প এবং রুহানি, দুইজনেরই আগামী মাসে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দেওয়ার কথা রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য