দিনাজপুর সংবাদাতাঃ বিরামপুরে কাটলা দ্বি-মূখী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষকের অবহেলায় দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এর প্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসকের গঠিত দুই সদস্যর তদন্ত কমিটি মঙ্গলবার (২০ আগষ্ট) দুপুরে বিদ্যালয়ে তদন্ত করেছেন। এরপর বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকসহ ৬ শিক্ষকে সাময়িক বহিস্কার করেছে।

অভিযোগে প্রকাশ, কাটলা দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র আব্দুল আজিম গত ৭ অগস্ট স্কুলে অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাকে দ্রুত হাসপাতালে নেওয়ার জন্য শিক্ষকদের ব্যবহৃত মোটর সাইকেলের সহায়তা চাইলে কোনো শিক্ষক ছাত্রদের সহায়তা করেনি। ফলে তাকে ভ্যানযোগে বিরামপুর হাসপাতালে নেওয়া হয়। এরপরই ওই ছাত্রের মৃত্যু ঘটে।


এ ঘটনায় ছাত্ররা লাশ নিয়ে স্কুলে ফিরে শিক্ষকদের ছয়টি মোটর সাইকেল পুড়িয়ে দেয় এবং মানববন্ধন ও ক্লাশ বর্জন কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছে। ঘটনা প্রবাহের প্রেক্ষিতে দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের নির্দেশে গঠিত অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) আবু সালে মোঃ মাহফুজুল আলম ও জেলা শিক্ষা অফিসার রফিকুল ইসলাম সমন্বয়ে দুই সদস্যের তদন্ত কমিটি মঙ্গলবার বিদ্যালয়ে উপস্থিত হয়ে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের স্বাক্ষ্য গ্রহণ ও তদন্ত কাজ সম্পন্ন করেছেন।

এ সময়, বিরামপুর উপজেলা চেয়ারম্যান খাইরুল ইসলাম রাজু, উপজেলা নির্বাহী অফিসার তৌহিদুর রহমান, থানার ওসি মনিরুজ্জামান মনির, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নূর আলম, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নাজির হোসেন প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

তদন্তের প্রাক্কালে শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী শিক্ষকদের শাস্তির দাবিতে বিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছে। পরে শিক্ষার্থীরা শিক্ষকদের শাস্তির দাবিতে ইউএনওর মাধ্যমে শিক্ষামন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে।

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আলম হোসেন জানান, ঘটনার প্রেক্ষিতে ছয় শিক্ষককে সাময়িক বহিস্কার করা হয়েছে। কিন্তু বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম বলেন, শিক্ষক বহিস্কারের বিষয়ে আমি কোনো চিঠি পাইনি।

এদিকে, বিরামপুরের কাটলা উচ্চ বিদ্যালয়ে স্কুল চলাকালীন সময় দশম শ্রেণীর ছাত্র আজিম অসুস্থ হওয়ার পর শিক্ষকদের অবহেলায় চিকিৎসা বঞ্চিত অবস্থায় মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে, আবারও ফুসে উঠেছে ছাত্র/ছাত্রী ও এলাকাবাসী।

কয়েক দিন স্কুল বন্ধ থাকার পর আজ স্কুল খুললে বেলা ১২ টায় বিদ্যালয়ের মাঠের সামনে প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম সহ জড়িত শিক্ষকদের বিচারের দাবিতে ক্লাস বর্জন করে বিদ্যালয় মাঠে বিক্ষোভ করে ছাত্র/ছাত্রী ও এলাকাবসী।

এই ঘটনার সুষ্ঠ বিচার না হওয়া পর্যন্ত ক্লাস বর্জনের হুশিয়ারী দেন তারা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য