দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর’র উপ-পরিচালকের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা আইসিসিও এবং কার্ক ইন একটাই এর আর্থিক সহায়তায় সিসিডিবি’র বায়োচার প্রকল্পের আওতায় “টেকসই খাদ্য নিরাপত্তায় কৃষিতে বায়োচার প্রযুক্তির ব্যবহার ও সম্প্রসারণ” শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

৬ আগস্ট মঙ্গলবার সকাল ১১টায় আয়োজিত সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন সিসিডিবি’র চেয়ারম্যান ড. হেরোল্ড সওগত বাড়ৈ। প্রধান অতিথি ছিলেন দিনাজপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক মোঃ আবদুল ওয়াজেদ।

বিশেষ অতিথি ছিলেন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ড. মোঃ মাহবুবুর রহমান, দিনাজপুর খামার বাড়ি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোঃ তৌহিদুল ইকবাল, হটিকালচার সেন্টারের উপ-পরিচালক প্রদীপ কুমার গুহ, জেলা প্রশিক্ষন কর্মকর্তা মোঃ শামিম আশরাফ, অতিরিক্ত উপ-পরিচালক (উদ্যান) বাদশা আলমীগর, অতিরিক্ত উপ-পরিচালক (শস্য) মোঃ শামীম, হাবিপ্রবি’র মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ড. শাহ মাইনুর রহমান ও বিআরআরআই’র উর্দ্ধতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মাসুদুজ্জামান মাসুদ।

উক্ত সেমিনারে বক্তারা বলেন গবেষণায় পাওয়া যায় যে, যে সকল মাটির জৈব পদার্থ ১ শতাংশের কম আছে সে সকল মাটিতে অনুমোদিত রাসায়নিক সার প্রয়োগের পরেও ভাল ফলন পাওয়া যায় না। ফলশ্র“তিতে আমাদের গ্রাম বাংলার কৃষকগণ বেশি ফলনের আশায় অতিরিক্ত রাসায়নিক সার প্রয়োগ করেন।

যার ফলে উৎপাদন খরচ বেড়ে যায়, ফসলের সংরক্ষণ ক্ষমতা কমে, পরিবেশের ক্ষতি সাধন করে এবং সর্বপরি মাটির উর্বরতা হ্রাস পায়। বক্তারা আরো বলেন, আখা (কৃষি বান্ধব চুলা) সিসিডিবি’র একটি অনন্য আবিষ্কার যা থেকে উৎপাদিত বায়োচার মাটি থেকে হারিয়ে যাওয়া জৈব শক্তি পূনরায় ফিরিয়ে আনতে সক্ষম।

উক্ত সেমিনারে দিনাজপুরের ১৩ উপজেলার উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা, প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া সাংবাদিকবৃন্দ, বীজ ও সার ডিলার, বিএডিসি কর্মকর্তা, জেলা সমাজসেবা কার্যালয়সহ বিভিন্ন সরকারী দপ্তরের কর্মকর্তাগণ অংশ নেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য