দিনাজপুরনিউজ ডেক্সঃ বন্যার সম্ভাবনা থেকে রেহাই দিতে যেন প্রকৃতি শ্রাবনের শেষে এসে থামিয়ে দিয়েছে স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত। দিনাজপুর জেলার কিছু কিছু এলাকায় হালকা বৃষ্টি হলেও সেই বৃষ্টিপাতে কোন ভাবে কমছে না তাপমাত্রা। আকাশ থেকে নেমে আসা সামান্য বৃষ্টি সুর্যের প্রখর তাপে বাস্প হয়ে তাপমাত্রা আরও যেন বাড়িয়ে দিচ্ছে।

আজ দিনাজপুর জেলায় বেলা একটার পর্যন্ত তাপমাত্রা ছিল ৩৭°সে। তাপমাত্রা বাড়ার সঙ্গে বাড়ছে আর্দ্রতা ও অস্বস্তি। গলদঘর্ম অবস্থায় দিন কাটাছে জেলার বাসিন্দাদের। আগামী ৪৮ ঘণ্টা আবহাওয়া অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থার এক রিপোর্টে জানা যায়, এই তাপমাত্রা আরও কিছুদিন চলতে থাকবে। তবে কোন কোন স্থানে হালকা বৃষ্টিপাত হতে পারে। বাংলাদেশ আবহাওয়া সংস্থা, নিম্নচাপের সম্ভাবনায় দেশের আভ্যন্তরিন নদীবন্দর সমুহকে ০১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলেছে।

গত কয়েকদিনের প্রচণ্ড গরমে মানুষের জনজীবন অতিষ্ঠ ও বিপর্যস্ত। পরিস্থিতি আরো প্রকট করে তুলেছে লোডশেডিং। ফলে সাধারণ মানুষ পড়েছে চরম বিপাকে। অসহনীয় এই গরম থেকে পরিত্রাণ পেতে পশু পাখিদের পুকুর-ডোবায় নেমে থাকতে দেখা গেছে। সুর্যের তাপ থরকর বাঁচতে আশ্রয় নিচ্ছে গাছের ছাঁয়ায়।

এদিকে গরমের সঙ্গে পাল্লা দিয়েছে মানুষের রোগ-বালাই। বিশেষ করে ডায়রিয়া ও জ্বরসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন রোগীরা। শিশু ও নারীদের দুর্ভোগ অনেক বেশি। গরম জনিত ডায়রিয়া ও জ্বরকে ডেঙ্গুজ্বর ভেবে অনেকেকে ভীড় করতে দেখা যায় হাসপাতাল, ক্লিনিক এবং প্রাইভেট চেম্বার গুলোতে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য