07. submarinমালয়েশিয়া এয়ারলাইন্সের বোয়িং ৭৭৭-এর এমএইচ৩৭০ উড়ালের নিখোঁজ বিমানটির ধ্বংসাবশেষের খোঁজে তৃতীয় দফায় ভারত মহাসাগরে একটি মিনি সাবমেরিন প্রথমবারের মতো পূর্ণাঙ্গ অভিযান চালিয়েছে। অভিযানে পাওয়া তথ্য বিশ্লেষণের কাজ চলছে।
অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী টনি অ্যাবোট বৃহস্পতিবার বলেছেন, বিমানটির ধ্বংসাবশেষ কোথায় রয়েছে তা বের করার জন্য এটি সবচেয়ে ভালো পন্থা এবং এটি নতুন একটি ধাপে প্রবেশ করেছে। ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘‘অস্ট্রেলিয়ার পাথের্র ২০০০ কিলোমিটার দক্ষিণে সাবমেরিনটি তল্লাশি চালিয়েছে। এক সপ্তাহের মধ্যে সাবমেরিনটির অনুসন্ধান শেষ হবে বলে জানান তিনি। যদি এর মধ্যে ধ্বংসাবশেষ খুঁজে না পাওয়া যায় তবে সাবমেরিন দিয়ে তল্লাশি অভিযান বন্ধ করা হবে বলে জানান। তবে অ্যাবোট এ কথাও বলেন যে, এতে কিছু খুঁজে পাওয়া না গেলে অন্যভাবে অনুসন্ধান শুরু করবেন তারা।
এর আগে দু’বার মিনি সাবমেরিন দিয়ে অস্ট্রেলিয়ার পশ্চিম উপকূলে ভারত মহাসাগরে দুটি অভিযানের চেষ্টা হয়। তবে তা ব্যর্থ হয়। [যান্ত্রিকত্রুটির কারণে বুধবার সকালে দ্বিতীয় অভিযানটিও বন্ধ হয়ে যায়] যান্ত্রিকত্রুটির কারণে বুধবার সকালে দ্বিতীয় অভিযানটিও বন্ধ হয়ে যায়।
স্যাটেলাইট থেকে পাওয়া ছবি এবং ইলেকট্রনিক সিগনাল পাওয়ার পর মার্কিন নৌ-বাহিনীর সমুদ্রের তলদেশে যাতায়াতকারী যান ব্লিউফিন-২১ দিয়ে বিমানের অনুসন্ধান চলছে। কিন্তু সাবমেরিনটির রেঞ্জ খুব কম এবং এ কারণে দুবার তার তল্লাশি বাধাগ্রস্ত হয়েছে।
তৃতীয়বার সমুদ্রে নেমে কোনো বাধা ছাড়া অনুসন্ধান চালাতে সমর্থ হয়েছে সাবমেরিনটি। এটি যে তথ্য সংগ্রহ করেছে, সেগুলো এখন বিশ্লেষণ করে দেখা হচ্ছে। একই সঙ্গে পরবর্তী অভিযানের জন্য প্রস্তুতি চলছে। প্রথম দুটি অভিযান ব্যর্থ হওয়ায় সেখান থেকে কোনো তথ্যই পাওয়া যায়নি।
মঙ্গলবার সকালে প্রথম অভিযানটি শুরু হয়। কিন্তু সমুদ্রের সংশ্লিষ্ট এলাকার গভীরতা সীমার বাইরে চলে যাওয়ায় অভিযানটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে বাতিল হয়ে যায়। দ্বিতীয় অভিযানটি শুরু হয় গত মঙ্গলবার রাতে। যান্ত্রিকত্রুটির কারণে বুধবার সকালে তা বন্ধ হয়ে যায়। অন্যদিকে, ভারত মহাসাগরের দক্ষিণে ১২টি বিমান এবং ১১টি জাহাজ ৪০, ৩৪৯ বর্গ কিলোমিটার এলাকায় তল্লাশি অব্যাহত রেখেছে।
স্যাটেলাইটের মাধ্যমে সংগৃহীত তথ্য-উপাত্তের ভিত্তিতে মালয়েশিয়ার সরকারি কর্মকর্তারা বলছিলেন, উড়োজাহাজটি ভারত মহাসাগরের দক্ষিণ অংশে বিধ্বস্ত হয়েছে। দুর্ঘটনাস্থল অস্ট্রেলিয়ার পার্থ শহর থেকে কয়েক হাজার কিলোমিটার পশ্চিমে।
মালয়েশিয়া এয়ারলাইনসের এমএইচ৩৭০ বিমানটি ২৩৯ জন আরোহী নিয়ে গত ৮ মার্চ রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়। কুয়ালালামপুর থেকে বেইজিংয়ের উদ্দেশ্যে যাত্রা করার এক ঘণ্টা পরই রাডারের সঙ্গে এর যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য