আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধাঃ গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে জলিল মিয়া সুপার মার্কেট মালিকের ছেলে মাদকসেবন করে মার্কেট ব্যবসায়ী, পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও সাংবাদিক সহ ২০টি মটরসাইকেল ভাংচুর ও মারপিটের ঘটনা ঘটেছে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ টার দিকে গোবিন্দগঞ্জ পৌরসভার জলিল মিয়া সুপার মার্কেটে এ ঘটনা ঘটে। মার্কেট ব্যবসায়ী ও প্রত্যক্ষদর্শিরা জানান, জলিল সুপার মার্কেটের মালিকের ছেলে আরিশা ফ্যাশন এর স্বর্তাধিকারী মির্জা আরিফ আহম্মেদ রাজিব মাদকসেবন করে মার্কেট ব্যবসায়ীদের অত্র মার্কেটে রাখা মটরসাইকেলে অর্তকিত ভাবে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে এবং ওই মার্কেটের সাথে লাগানো গোবিন্দগঞ্জ পৌরসভার প্যানেল মেয়র রিমন তালুকদারের নিজস্ব অফিস ও গোবিন্দগঞ্জ সাংবাদিক এসোসিয়েশনের কার্যালয়ের সামনে প্যানেল মেয়র ও সাংবাদিকের মটরসাইকেলও ভাংচুর করে পেট্রোল দিয়ে আগুন লাগানোর চেষ্টা করে।

মটরসাইকেল ভাংচুরের ঘটনা পৌরসভার প্যানেল মেয়র রিমনতালুকদার তার অফিসের সিসি ক্যামেরায় দেখতে পেয়ে দ্রুত বের হয়ে এসে মটরসাইকেল ভাংচুর করার প্রতিবাদ করে। এতে মাদকাশক্ত রাজিব তার উপর চড়াও হয়। ভাংচুরকৃত মটরসাইকেলের মালিকেরা হলেন, জলিল সুপার মার্কেটের ব্যবসায়ী রনি, শাহিনুর, রাজ্জাক, মঞ্জু, ঠান্ডু, রজ্জব, রশিদের ৭টি ও ঔষুধ কোম্পানির রিপ্রেজিনটিভের ৩টি মটরসাইকেল ভাংচুর করে।

এ ছাড়াও পৌরসভার প্যানেল মেয়র রিমন তালুকদার ১টি সাংবাদিকদের ৩টি এবং মার্কেটে আসা ক্রেতাদের ৬টি মটরসাইকেল ভাংচুর ও পৌর প্যানেল মেয়র রিমন তালুকদারের মটরসাইকেলে পেট্রোল দিয়ে আগুন লাগানোর চেষ্টা করলে ব্যবসায়ী ও পথচারীরা তাকে ধাওয়া করলে সে দ্রুত পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনারস্থল পরিদর্শণ করেছে।

গোবিন্দগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ একেএম মেহেদী হাসান এ বিষয়ে বলেন, জলিল সুপার মার্কেটে মাদকসেবন করে ব্যবসায়ী ও সাংবাদিকের মটরসাইকেল ভাংচুর করা মাদকসেবী রাজিবকে গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান চলছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য