সাইবেরিয়া ও পূর্বাঞ্চলের অন্যান্য এলাকায় ছড়িয়ে পড়া ব্যাপক দাবানল নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করার জন্য সেনাবাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

বাড়তে থাকা ওই সঙ্কটের বিষয়ে জরুরি মন্ত্রণালয়ের প্রধানের বক্তব্য শোনার পর পুতিন এ নির্দেশ দেন বলে জানিয়েছে বিবিসি।

রাশিয়ার প্রায় ৩০ লাখ হেক্টর অঞ্চল দাবানলের কবলে পড়েছে। এ দাবানলকে ‘পরিবেশগত বিপর্যয়’ হিসেবে বর্ণনা করেছে আন্তর্জাতিক পরিবেশবাদী সংগঠন গ্রিনপিস।

এসব দাবানল নিয়ন্ত্রণে যথেষ্ট উদ্যোগ নেওয়া হয়নি বলে স্থানীয় অনেক বাসিন্দা অভিযোগ করেছেন।

সাইবেরিয়ার বিশাল অঞ্চলজুড়ে জরুরি অবস্থা ঘোষণা ও পরিস্থিতি মোকাবিলায় দৃঢ় পদক্ষেপ নিতে দাখিল করা একটি পিটিশনে সাত লাখেরও বেশি লোক স্বাক্ষর করেছেন।

সাইবেরিয়ার বসতিহীন প্রত্যন্ত এলাকার ওই দাবানল স্থানীয় লোকজনের জন্য সরাসরি হুমকি না হওয়ায় তারা আগুন নিয়ন্ত্রণের কোনো পরিকল্পনা করছেন না, জরুরি কর্মকর্তাদের এমন মন্তব্যে রাশিয়াজুড়ে ব্যাপক ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়।

এ পরিস্থিতিতে বুধবার প্রেসিডেন্ট পুতিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মচারীদের সাইবেরিয়ার দাবানল নিয়ন্ত্রণের উদ্যোগে শামিল হওয়ার আদেশ দেন।

ইতোমধ্যেই আগুন নিয়ন্ত্রণের উপকরণ সজ্জিত ১০টি বিমান ও ১০টি হেলিকপ্টার ওই এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে।

এর আগে বুরিয়াতিয়া প্রজাতন্ত্রের দুটি এলাকা ইরকুতস্ক্ ও ক্রিসনাইয়াস্ক্ অঞ্চলে এবং সাখা (ইয়াকুতিয়া) প্রজাতন্ত্রের একটি এলাকায় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়।

বুধবার রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভে ক্রিসনাইয়াস্ক্ শহরে গিয়ে স্থানীয় কর্মকর্তাদের সঙ্গে জরুরি বৈঠকে মিলিত হন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য