আজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাটঃ লালমনিরহাট সদর উপজেলার ভাটিবাড়ী আলী আশরাফ হাফিজিয়া মাদরাসার সুপার মাওলানা জিল্লুর রহমানকে (৩৫) নারীসহ আটক করে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয় জনতা।

মঙ্গলবার (৩০ জুলাই) মধ্য রাতে মাদরাসার অফিস কক্ষে অসামাজিক কার্যকলার্পের সময় নারীসহ ওই সুপারকে আটকের পর পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয়রা। আটক মাদরাসা সুপার লালমনিরহাট সদর উপজেলার তেলীপাড়া গ্রামের নোহর ইসলামের ছেলে এবং ওই নারী উপজেলার চর খাটামারী গ্রামের বাসিন্দা। তারা দুজনেই অবিবাহিত বলে জানা গেছে।

মাদরাসাটির পরিচালনা পর্ষদের সহ-সভাপতি আব্দুর রহিম জানান, মঙ্গলবার রাতে অফিস কক্ষের দরজা বন্ধ করে মাদরাসা সুপার জিল্লুর রহমান অপরিচিত এক নারীর সঙ্গে অসামাজিক কর্মকাণ্ডে মেতে উঠেন। এসময় মাদরাসার আবাসিক ছাত্ররা স্থানীয় লোকজনকে বিষয়টি জানালে তারা সেখানে যায়।

মাদরাসা সুপার বিষয়টি বুঝতে পেরে ওই নারীকে কক্ষের আলমারির ভেতর লুকিয়ে রাখেন এবং এলাকাবাসীর মুখোমুখি হয়ে নিজেকে নিরপরাধ দাবি করেন। স্থানীয় লোকজন প্রথমে বোকা বনে গেলেও পরবর্তীতে মেয়েটিকে আলমারিতে লুকিয়ে রাখার বিষয়টি টের পেয়ে তাকে সেখান থেকে বের করে নিয়ে আসে।

আব্দুর রহিম বলেন, ‘‘আমরা প্রথমে ওই মাদরাসা সুপার ও নারীসহ ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে যাই এবং তার পরামর্শ অনুযায়ী দু’জনকে পুলিশে সোপর্দ করি।’

লালমনিরহাট সদর থানার ওসি মাহফুজ আলম জানান, এ ঘটনায় আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। বিষয়টি প্রেমঘটিত বলে জানা গেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য