পুলিশের দেওয়া নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে হংকংয়ের আন্দোলনকারীরা রাস্তায় নেমে শহরটির গুরুত্বপূর্ণ সব সড়ক আটকে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে।

রোববার ছাতা হাতে কালো পোশাক পরিহিত এ আন্দোলনকারীদের পুলিশের বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে দিতে শহরের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান অধ্যুষিত এলাকার দিকে অগ্রসর হতেও দেখা গেছে, জানিয়েছে বিবিসি।

হংকংয়ের পুলিশ সরকারবিরোধী এ আন্দোলনকারীদের চ্যাটার গার্ডেনে সমাবেশের অনুমতি দিলেও পার্কের বাইরে বিক্ষোভের ক্ষেত্রে সতর্ক করেছিল।

বিক্ষোভকারীদের অনেকের হাতে যুক্তরাষ্ট্রের পতাকাও দেখা গেছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

শনিবার শহরের উত্তরে ইউয়েন লংয়ে গণতন্ত্রপন্থিদের অন্য এক বিক্ষোভে পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ও রাবার বুলেট ছুড়েছিল।

টানা ৭ সপ্তাহ ধরে চীনের আধা সায়ত্ত্বশাসিত এ অঞ্চলটি সরকারবিরোধী গণতন্ত্রপন্থিদের বিক্ষোভে টালমাটাল। বিশ্বের অন্যতম নিরাপদ শহর হিসেবে পরিচিত হলেও হংকংয়ে সাম্প্রতিক সময়ে পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের দফায় দফায় সহিংসতা হতে দেখা গেছে।

বিচারের জন্য চীনের মূল ভূখণ্ডে হংকংয়ের বাসিন্দাদের পাঠানোর সুযোগ রেখে করা একটি বিলের বিরোধিতা থেকে এ ধারাবাহিক বিক্ষোভের সূচনা ঘটে।

বিলটি পাস হলে, চীন হংকংয়ের রাজনৈতিক কর্মীদের শায়েস্তায় সেটিকে কাজে লাগাতো বলে আশঙ্কা সমালোচকদের।

ধারাবাহিক বিক্ষোভের মুখে হংকংয়ের আঞ্চলিক সরকার বিলটি পাসের পরিকল্পনা স্থগিত করলেও আন্দোলনকারীরা তাতে তুষ্ট নয়; তারা বিলটি একেবারেই প্রত্যাহার এবং পুলিশের সঙ্গে সহিংসতার ঘটনায় তদন্তের পাশাপাশি হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী ক্যারি লামের পদত্যাগও দাবি করছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য