ভারতের হিমাচল প্রদেশের রাজধানী শিমলার একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত এক বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। গত সোমবার রাতে মেহলি এলাকার ভাড়া বাসা থেকে আইজাজুল ইসলাম (২০) নামের এই শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। স্থানীয় পুলিশ সুপারের বরাত দিয়ে ভারতের বার্তা সংস্থা এএনআই জানিয়েছে, এই শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

শিমলার এপি গয়াল বিশ্ববিদ্যালয়ে বিবিএ পড়তেন আইজাজুল ইসলাম। শিমলার স্থানীয় সহপাঠীরা এএনআইকে জানিয়েছেন, তার বাড়ি বাংলাদেশের রংপুর জেলার তারাগঞ্জ উপজেলায়। তার বাবা শহিদুল ইসলাম বাংলাদেশের সর্বশেষ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিয়ে পরাজিত হন।

মঙ্গলবার শিমলার পুলিশ সুপার উমাপতি জামওয়াল বলেছেন, সিআরপিসি’র ১৭৪ ধারায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়া বাংলাদেশ দূতাবাসকেও বিষয়টি লিখিত আকারে জানানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে এটাকে আত্মহত্যা বলে মনে হলেও ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হওয়া যাবে বলে জানান তিনি।

পুলিশ সুপার বলেন, ঘটনাস্থল থেকে আমরা কোনও সুইসাইড নোট উদ্ধার করিনি। সামাজিক যোগাযোগের একটি ওয়েবসাইটে কয়েকজন তাকে ছবি পাঠিয়েছিল, সেগুলো পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে।

বার্তা সংস্থা এএনআই জানিয়েছে, ময়নাতদন্তের পর তার মরদেহ ঘনিষ্ঠ শিক্ষার্থীদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। বর্তমানে তার মরদেহ ইন্দিরা গান্ধী মেডিক্যাল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হয়েছে।

ভারতের সংবাদমাধ্যম দ্য ট্রিবিউনের খবরে বলা হয়েছে, মেয়ে বন্ধুর মৃত্যুতে হতাশ ছিলেন ওই শিক্ষার্থী।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য