কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার নাওডাঙ্গা স্কুল অ্যান্ড কলেজে র্দীঘদিন ধরে শ্রেণিকক্ষ মেরামত ও বিদ্যুৎ সংযোগ না থাকায় ক্লাস বর্জন ও অধ্যক্ষের রুমে তালা লাগিয়েছেন বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা। শনিবার সকালে জাতীয় সঙ্গীত শেষে শিক্ষকরা ক্লাস নেওয়ার জন্য শ্রেণিকক্ষে গেলে স্কুল সেকশনের বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করে অধ্যক্ষের রুমে তালা ঝুলিয়ে দেয়।

দুপুরে প্রতিষ্ঠানটি গিয়ে দেখা গেছে অধ্যক্ষের রুমে তালা ঝোঁলানোর চিত্র। সেই সঙ্গে শ্রেণিকক্ষে চেয়ার-টেবিল ভাংচুরের ঘটনাও ঘটেছে। পরে বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা আল্টিমেটাম দিয়েছে, শ্রেণী কক্ষ, টয়লেট মেরামত ও বিদ্যুৎ সংযোগ না দেওয়া পর্যন্ত ক্লাস বর্জন আন্দোলন চলবে।

এ বিষয়ে সহকারী প্রধান শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম জানান, র্দীঘ এক বছর ধরে শিক্ষার্থীরা শ্রেণিকক্ষ মেরামত ও বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার জন্য অধ্যক্ষের কাছে আবেদন করে আসছে। তাদের দাবি না মানায় শিক্ষার্থীরা আজ ক্লাস বর্জন করে অধ্যক্ষের রুমে তালা লাগিয়েছে। প্রতিষ্ঠানের এই বেহাল দশার কারণে স্থানীয় কিছু দুস্কৃতকারীরা রাতের অন্ধকারে ঢুকে জুয়ার আসর বসাত। কিন্তু শিক্ষার্থীরা ছাড়াও প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং বডির সদস্যরাও এ দাবি জানিয়ে আসছেন। কিন্তু প্রতিষ্ঠান প্রধান কর্ণপাত করছে না।

এ প্রসঙ্গে নাওডাঙ্গা স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ মোছা. ফাতেমা খাতুন শিক্ষার্থীদের ক্লাস বর্জন ও রুমে তালা দেওয়া এবং শিক্ষার্থীদের র্দীঘদিনের দাবির বিষয়টি স্বীকার করেন। তিনি জানান, সভাপতি ঢাকায় আছেন। তিনি আসলে মিটিং করে শ্রেণিকক্ষ মেরামত ও বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য