বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) আফ্রিকার দেশ ডেমোক্রেটিক রিপাবলিক অব কঙ্গোর ইবোলা সংকটকে ‘বৈশ্বিক জনস্বাস্থ্য সংকট’ বলে ঘোষণা দিয়েছে।

বুধবার জেনেভাতে এক সংবাদ সম্মেলনে ডব্লিউএইচও-র প্রধান টেড্রোস আধানম গিব্রাইয়াসুস একে ‘আন্তর্জাতিক পর্যায়ের জনস্বাস্থ্য সংকট’ উল্লেখ করে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেন, জানিয়েছে বিবিসি।

এ সময় তিনি বলেন, “এ বিষয়ে বিশ্ববাসীর নজর দেওয়ার সময় হয়েছে।”

এ ঘোষণার ফলে সম্পদশালী দাতা দেশগুলো আরও অর্থ সহায়তা দেওয়ার বিষয়ে সচেতন হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

চলতি সপ্তাহে ১০ লাখেরও বেশি বাসিন্দার শহর ডিআর কঙ্গোর গোমায় প্রথমবারের মতো একজনের শরীরে ইবোলার ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। ইতোমধ্যে দেশটির আড়াই হাজারেরও বেশি লোক ইবোলায় আক্রান্ত হয়েছে এবং তাদের মধ্যে এক হাজার ৬০০ জনেরও বেশি লোক মারা গেছে।

ইতিহাসে দ্বিতীয় বৃহত্তম এই প্রাদুর্ভাব ২০১৮ সালের অগাস্টে শুরু হয়ে ডিআর কঙ্গোর উত্তর কিভু ও ইতুরি প্রদেশে ছড়িয়ে পড়ে। ২২৪ দিনের মধ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ১০০০ জনে দাঁড়ায়, কিন্তু পরবর্তী মাত্র ৭১ দিনের মধ্যে সংখ্যাটি ২০০০ জনে গিয়ে ঠেকে। প্রতিদিন নতুন করে প্রায় ১২ জন এ রোগে আক্রান্ত হচ্ছে।

ওই অঞ্চলের বাইরে রোগটি ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি বেশি না হওয়ায় এখনই সীমান্ত বন্ধ করার বিষয়ে কিছু বলেনি ডব্লিউএইচও।

সর্বোচ্চ পর্যায়ের এই জরুরি পরিস্থিতির ঘোষণা এর আগে মাত্র চারবার দিয়েছিলো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাটি। তার মধ্যে একটি পশ্চিম আফ্রিকায় মহামারী আকারে ইবোলার ছড়িয়ে পড়া নিয়েই ছিল। ২০১৪ থেকে ২০১৬-র ওই সময়টিতে পশ্চিম আফ্রিকায় ইবোলা সংক্রমণে ১১ হাজারের বেশি লোকের মৃত্যু হয়েছিল।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য