তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়িপ এরদোয়ান আগামী বছরের এপ্রিলের মধ্যেই তার দেশে রুশ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাপনা এস-৪০০ পুরোপুরি মোতায়েন হবে বলে জানিয়েছেন।

তিন বছর আগের এক ব্যর্থ অভ্যুত্থানচেষ্টার বর্ষপূর্তিতে সোমবার এরদোয়ান একথা জানান।

রাশিয়া থেকে তুরস্কে গত কয়েকদিন ধরে এস-৪০০ এর বেশকিছু যন্ত্রাংশ পৌঁছেছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

রুশ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাপনা নিয়ে আঙ্কারার পদক্ষেপ তার নেটো মিত্র দেশ বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্রকে ক্ষুব্ধ করেছে। এস-৪০০ মোতায়েন হলে দেশটির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপেরও হুঁশিয়ারি দিয়ে রেখেছে ওয়াশিংটন।

আতাতুর্ক বিমানবন্দরে দেওয়া বক্তৃতায় এরদোয়ান বলেন, এরই মধ্যে এস-৪০০ এর যন্ত্রাংশ নিয়ে ৮টি বিমান তুরস্কে নেমেছে; আরও বিমান আসছে।

“আল্লাহর ইচ্ছায়, নির্দিষ্ট স্থানে ২০২০ এর এপ্রিলের মধ্যেই সেগুলো মোতায়েন হয়ে যাবে; যারা আমাদের দেশে আক্রমণ শানাতে চায়, তাদের জন্যই এই এস-৪০০, যা এই মুহুর্তে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাপনা। আমরা রাশিয়ার সঙ্গে যৌথ বিনিয়োগে এটি মোতায়েনের কাজ করছি, এবং ভবিষ্যতেও করে যাবো,” বলেছেন তিনি।

ওয়াশিংটন বলেছে, তুরস্ক এস-৪০০ বসালে তারা দেশটির ওপর নিষেধাজ্ঞার পাশাপাশি আঙ্কারাকে এফ-৩৫ জঙ্গিবিমান কর্মসূচি থেকেও সরিয়ে নেওয়া হবে।

এর ফলে তুরস্ক এফ-৩৫ জঙ্গিবিমানের কোনো অংশ বানাতে কিংবা এ অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমানটি কিনতে পারবে না।

আঙ্কারা এ ধরনের পদক্ষেপের ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্ক করেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য